ঢাকা, রবিবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

তিন বিভাগীয় শহরে হচ্ছে এনপিওর আঞ্চলিক অফিস

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-১৩ ৬:০১:১৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-১৩ ৭:৩৪:২৭ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : তৃণমূল পর্যায়ে উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন কার্যক্রম ছড়িয়ে দিতে তিনটি বিভাগীয় শহরে ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অরগানাইজেশনের (এনপিও) আঞ্চলিক অফিস স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়।

এ লক্ষ্যে ইতোমধ্যে ৩৫৮ জন জনবল নিয়োগের একটি প্রস্তাব জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। এটি অনুমোদিত হলে আঞ্চলিক কার্যালয় স্থাপনের কাজ শুরু হবে।

বৃহস্পতিবার শিল্প মন্ত্রণালয়ে এনপিওর কার্যনির্বাহী কমিটির চতুর্দশ সভায় এ তথ্য জানানো হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. আবদুল হালিম।

সভায় শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. দাবিরুল ইসলাম, এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সফিকুল ইসলাম, বিএসইসির চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, বিএসএফআইসিএর চেয়ারম্যান এ কে এম দেলোয়ার হোসেন, নাসিব সভাপতি মির্জা নুরুল গণি শোভন, এফবিসিসিআইর পরিচালক মো. নিজাম উদ্দিন, এনপিও পরিচালক এস.এম আশরাফুজ্জামানসহ কমিটি সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান ও ট্রেডবডির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় তৃণমূল পর্যায়ে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির প্রয়াস জোরদারের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনাসহ শ্রমিকের দক্ষতা বৃদ্ধি, জেলা পর্যায়ে স্থাপিত বিসিক শিল্পনগরীগুলোতে উৎপাদনশীলতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম সম্প্রসারণ, তথ্যবহুল এনপিও বার্তা প্রকাশ এবং এফবিসিসিআইর সাথে এনপিওর সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

এছাড়া, রাজধানীকেন্দ্রিক এনপিওর কার্যক্রম তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে লাগসই প্রকল্প গ্রহণের ওপর গুরুত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। ঢাকা শহরের ট্রাফিকিং সিস্টেম মানসম্মত করতে জাপানের উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন কৌশল ‘ফাইভ এস’ অবলম্বনে প্রকল্প প্রণয়নের জন্য এনপিওকে নির্দেশনা দেওয়ারও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। শিল্প ও সেবা খাতে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে উৎপাদনশীলতা বিষয়ক ধারণা দেওয়া ও এ লক্ষ্যে জেলা পর্যায়ে বিভিন্ন চেম্বার, ট্রেডবডি ও জেলা প্রশাসনকে সম্পৃক্ত করে উৎপাদনশীলতা বিষয়ক আলোচনা সভা, সেমিনার, সিম্পোজিয়াম ইত্যাদি আয়োজনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এ সময় ভারপ্রাপ্ত শিল্প সচিব বলেন, উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির উদ্যোগ শিল্প মন্ত্রণালয় থেকেই শুরু করতে হবে। সবার আগে শিল্প মন্ত্রণালয় এবং রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প কারখানাগুলোতে জাপানের কাইজেন ও ফাইভ এস পদ্ধতি  প্রয়োগ করতে হবে। এর সুফল দেখে বেসরকারি অফিস আদালত ও শিল্প কারখানার মালিকরা উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির প্রয়াসে সামিল হবে।

প্রতিযোগিতামূলক বাজারে টিকে থাকতে পণ্যের গুণগতমান বৃদ্ধির মাধ্যমে উৎপাদনশীলতা বাড়ানো প্রয়োজন। জাতীয় শিল্পনীতি-২০১৬ এর নির্দেশনার আলোকে দেশব্যাপী সবুজ উৎপাদনশীলতা বিষয়ক ধারণার প্রসারে কার্যকর কর্মপন্থা গ্রহণের জন্য এনপিওর কর্মকর্তাদের আহ্বান জানান তিনি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮/নাসির/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC