ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||  আশ্বিন ১৪ ১৪২৯ ||  ০২ রবিউল আউয়াল ১৪১৪

‘বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠান’

এস এ সৌরভ, মালয়েশিয়া || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৩৫, ১৫ আগস্ট ২০২২  
‘বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠান’

মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশি শ্রমিকদের বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. গোলাম সারোয়ার।

সোমবার (১৫ আগস্ট) স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

দিবসের শুরুতে মো. গোলাম সরোয়ার হাইকমিশনে কর্মরত সব কর্মকর্তা-কর্মচারী ও মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। এ সময় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট শাহাদাতবরণকারী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত ও দেশের সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয় এবং শাহাদতবরণকারীদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

পরে দূতাবাসের হলরুমে আলোচনা সভা হয়। সভায় হাইকমিশনার মো. গোলাম সরোয়ার বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু গভীরভাবে মানুষকে ভালোবাসতেন। তিনি বিশ্বাস করতেন, জনগণকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করতে না পারলে অধিকার প্রতিষ্ঠা কিংবা উন্নয়ন কিছুই সম্ভব নয়। জনগণের রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জনই ছিল বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনের একমাত্র দর্শন।’

তিনি আরও বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হুন্ডির মাধ্যমে রেমিট্যান্স পাঠানোর জন্য উৎসাহিত করা হচ্ছে, এটা খুবই দুঃখজনক। প্রবাসী ভাই ও বোনেরা, দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে বৈধ উপায়ে রেমিট্যান্স পাঠাবেন। বর্তমানে মালয়েশিয়ার অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো। এখানে আরও ৫ লাখ বাংলাদেশি কর্মীর কর্মসংস্থান হবে বলে আশা করছি। ইতোমধ্যে কলিং ভিসার জন্য প্রায় ৩০ হাজার আবেদন পাইপলাইনে আছে এবং কাজ চলছে।’

অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের শ্রম মিনিস্টার মো. নাজমুস সাদাত সেলিম। প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন কাউন্সিলর (বাণিজ্য) মো. রাজিবুল আহসান। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার ফার্স্ট সেক্রেটারি মিয়া মোহাম্মদ কিয়াম উদ্দীন। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন ফার্স্ট সেক্রেটারি (রাজনৈতিক) রেহেনা পারভীন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব (রাজনৈতিক) ও দূতালয় প্রধান রুহুল আমিন।

আলোনা সভায় ডেপুটি হাইকমিশনার মোহাম্মদ খোরশেদ এ খাস্তগীর, কাউন্সিলর (শ্রম) মো. জহিরুল ইসলাম, প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা কমডোর মোস্তাক আহমেদ, কাউন্সিলর (কন্স্যুলার) জি এম রাসেল রানা, ফার্স্ট সেক্রেটারি (শ্রম) এএসএম জাহিদুর রহমান, সেকেন্ড সেক্রেটারি (শ্রম) সুমন দাসসহ হাইকমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ নেতা সেলিম জালাল উদ্দীন, মনিরুজ্জামান মনির, রাশেদ বাদল, ইন্জিনিয়ার খোকন, শফিকুর রহমান চৌধূরী, দাতু আখতার হোসেন, মামুনুর রশিদ, নুর মোহাম্মদ ভূইয়া, রুহুল আমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সৌরভ/রফিক

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়