RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০ ||  কার্তিক ১০ ১৪২৭ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

আমন ধানে স্বপ্ন দেখছেন কৃষক

হিলি (দিনাজপুর) সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৫২, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১১:০০, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০
আমন ধানে স্বপ্ন দেখছেন কৃষক

ভাল আবহাওয়া ও পর্যাপ্ত বর্ষার পানি পাওয়ায় আমন ধানের ক্ষেত যেন এবার হাসছে।  ধান চাষে খ্যাত দিনাজপুরের মাঠে মাঠে এখন আমনের সবুজের সমারোহ।  আমন ধান ক্ষেতে বাতাসে দুলছে কৃষকের সবুজ স্বপ্ন।

দিনাজপুরে এবার আমন ধানের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা দেখছেন কৃষক।  এ মৌসুমে জেলায় ২ লাখ ৬০ হাজার ৩৩ হেক্টর জমিতে আমনের চাষ হয়েছে।  আর এক মাসের মধ্যেই কৃষক তাদের কাঙ্খিত আমন ধান কেটে ঘরে তুলতে পারবেন।

বিরামপুরের কেটরা গ্রামের ধানচাষি মাসুদ রানা বলেন, আমার ২১ বিঘা জমি আছে।  গতবার বোরো মৌসুমে ১৫ বিঘা জমিতে ধান চাষ করেছিলাম।  এবার পুরো ২১ বিঘা জমিতে আমন চাষ করেছি।  আশা করছি ভালো ফলন ও ভালো দাম পাবো।

হিলির মুনশাপুর গ্রামের কৃষক ইমাজুল ইসলাম বলেন, আমি গরিব মানুষ, চার বিঘা জমি বর্গা নিয়ে চাষ করেছি।  এই মাঠে সবার চেয়ে আমার জমিতে আমন চাষ ভাল হয়েছে।  প্রতিদিন ধান ক্ষেতে আসি আর স্বপ্ন দেখি, ধান কেটে ছেলে-মেয়েদের নিয়ে সুখে দিন কাটাবো।

বিরামপুর উপজেলা কৃষি অফিসার নিক্সন চন্দ্র সরকার জানান, উপজেলায় ১৭ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে আমন চাষ হয়েছে।

ঘোড়াঘাট উপজেলা কৃষি অফিসার এখলাছ আহম্মেদ সরকার জানান, এ উপজেলায় এবার মোট ১০ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে আমন চাষ হয়েছে।

হাকিমপুর (হিলি) উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীমা নাজনীন জানান, এ উপজেলায় ৮ হাজার ১শ ৫ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ হয়েছে।  অন্যবারের চেয়ে এবার আমনের ফলন ভাল হয়েছে। 

দিনাজপুর কৃষি অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তৌহিদুল ইকবাল বলেন, গতবারের চেয়ে এবার আমন চাষে কৃষকের আগ্রহ বেশি।  জেলায় ২ লাখ ৬০ হাজার ৩৩ হেক্টর জমিতে আমন চাষ হয়েছে।  আবহাওয়া ভাল এবং বর্ষার পানিতে কোথাও ধান ডুবে যায়নি।  আমন চাষের জন্য যে পরিমাণ বর্ষার পানি জমিতে থাকা দরকার তা রয়েছে।  জেলার ১৩ উপজেলার কৃষি কর্মকর্তারা প্রতিনিয়ত কৃষকদের পরামর্শসহ সকল সহযোগীতা করে আসছে।  আশা করছি কৃষকরা ঘরে ভাল ফলন তুলতে পারবেন।

মোসলেম উদ্দিন/টিপু

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়