ঢাকা     বুধবার   ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ১৯ ১৪২৯

সরস্বতী পূঁজা উপলক্ষে গোপালগঞ্জে প্রতিমার হাট

বাদল সাহা, গোপালগঞ্জ  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০৩, ২৪ জানুয়ারি ২০২৩   আপডেট: ১১:১৭, ২৪ জানুয়ারি ২০২৩
সরস্বতী পূঁজা উপলক্ষে গোপালগঞ্জে প্রতিমার হাট

সনাতন ধর্মবলম্বীদের বিদ্যার দেবী সরস্বতী। আগামী বৃহম্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিত হবে সরস্বতী দেবীর পূজা। আর এই পূজাকে কেন্দ্র করে গোপালগঞ্জ জেলার বিভিন্ন স্থানে বসেছে প্রতিমার হাট। বিভিন্ন বয়সের মানুষ এসব হাট থেকে কিনে নিচ্ছেন পছন্দ অনুযায়ী প্রতিমা। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বাসা-বাড়ির পাশাপাশি বিভিন্ন মন্দির ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও চলছে পূঁজা আয়োজনের শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি।

জেলা শহরের গোহাট সার্বজনীন কালীবাড়ি, সদর উপজেলার সাতপাড়, বৌলতলী, ভেন্নাবাড়ী, রঘুনাথপুর, কোটালীপাড়া উপজেলার রামনগর, রাধাগঞ্জ, ধারাবাশাইল, ভাঙ্গারহাট, ঘাঘর বাজার হিরণ, সিকিরবাজার, বাঁশবাড়ীয়া ও বালিয়াভাঙাসহ ৩০টি স্থানে বসেছে সরস্বতী প্রতিমার হাট। জেলা শহরের গোহাট সার্বজনীন কালীবাড়িতে সবচেয়ে বড় প্রতিমার হাটটি বসেছে। বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিমা কারিগরেরা (পাল) এখানে প্রতিমা এনে বিক্রি করছেন। এসব প্রতিমা বেচা-বিক্রি চলবে আগামীকাল বুধবার রাত পযর্ন্ত।

হাটে ছোট বড় মিলিয়ে প্রায় দুই থেকে তিন হাজার প্রতিমা বিক্রির জন্য এনেছেন কারিগররা। যে যার পছন্দ আর সাধ্য মত কিনছেন প্রতিমা। হাটে আনা এক একটি প্রতিমা সাইজ অনুযায়ী বিক্রি হচ্ছে ২৫০ টাকা থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত। শুধু প্রতিমাই নয় এ হাটে বিক্রি হচ্ছে ফুল, মালা, মিষ্টিসহ পূঁজার অন্যান্য উপকরণও। 

গোপালগঞ্জ শহরের বাসিন্দা গৃহবধূ সম্পা সাহা বলেন, ‘আমার মেয়ের বয়স চার বছর হলো। এবার তাকে স্কুলে ভর্তি করেছি। সেজন্য বিদ্যার দেবী মা সরস্বতীর আশির্বাদ পাওয়া জন্য ঘরে পূজার আয়োজন করা হয়েছে।’   

প্রতিমা কিনতে আসা ক্রেতা কবিতা সাহা ও সুজন ঘোষ বলেন, প্রতি বছরের মত এ বছর বাড়িতে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হবে। গোহাট সার্বজনীন কালীবাড়িতে সরস্বতী প্রতিমা কিনতে এসেছি। এখানে ছোট প্রতিমার দাম ২৫০ টাকা থেকে শুরু। বড় প্রতিমার দাম ১০ হাজার টাকা। সাধ্যের মধ্যে যে প্রতিমা হবে সেটি কিনে নিয়ে বাসায় ফিরবো।’ 

কোটালীপাড়া উপজেলার হিজল বাড়ি থেকে প্রতিমা কিনতে করতে আসা স্বপন বর্ণিক বলেন, ‘এ বছর আমি প্রথম সরস্বতী মায়ের পূঁজা করবো। তাই পূঁজা উপলক্ষে কালিগঞ্জ হাটে এসে প্রতিমা কিনলাম। ১৬০০ টাকা দিয়ে প্রতিমা কিনেছি।’

কোটালীপাড়া উপজেলার বালিয়াভাঙ্গা থেকে প্রতিমা নিয়ে আসা জয় পাল বলেন, ‘প্রতিবছর কালিগঞ্জ বাজারে আমরা প্রতিমা নিয়ে আসি। এবছর অন্যান্য বছরের চেয়ে ভালো দামে প্রতিমা বিক্রি করতে পারছি।’

কোটালীপাড়া উপজেলার মঠবাড়ী থেকে আসা প্রতিমা শিল্পী রামপাল বলেন, ‘এ বছর সরস্বতী প্রতিমা ভালো দামে বিক্রি করতে পারছি। সবকিছুর দাম বেড়ে যাওয়ায় প্রতিমার দামও বেড়েছে। অন্যান্য বছরে যে দামে প্রতিমা বিক্রি করতাম তার চেয়ে বেশি দামে এবছর প্রতিমা বিক্রি করতে হচ্ছে।’

সরস্বতী দেবীকে সাজাতে উপকরণ নিয়ে হাটে আসা সঞ্জয় ফেলিয় বলেন, ‘বিগত দুই বছর করোনার কারণে সীমিত আকার পূজা হয়েছে। তাই পূজার উপকরণ কম বিক্রি ছিলো। এবছর সরস্বতী পূজার আনন্দটা বেশি তাই প্রতিমা বেশি বিক্রি হচ্ছে। প্রতিমা সাজানোর ফুল, মালা ও পূজার অন্যান্য উপকরণগুলো বিক্রি হচ্ছে বেশি। প্রতিটি পূজার উপকরণ ভালো দামে বিক্রি হওয়ায় আমি খুবই খুঁশি।’

মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়