ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

এক আসনেই ৩ নারী

মাহির প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোটে ফিরলেন ডালিয়া 

রাজশাহী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৫১, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১৮:৫৭, ২৫ ডিসেম্বর ২০২৩
মাহির প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোটে ফিরলেন ডালিয়া 

রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। নির্বাচনি প্রচার শুরুর এক সপ্তাহ পর মাহির প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে ভোটের মাঠে ফিরলেন অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহনেওয়াজ আয়েশা আক্তার জাহান ডালিয়া। তিনি পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সহধর্মিনী।

বর্তমানে রাজশাহী-১ আসনটিতে তিনজন নারী প্রার্থী নির্বাচন করবেন। অপর নারী প্রার্থী হলেন- এনপিপির প্রার্থী নুরুন্নেসা। তিনি ‘আম’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন। 

ভোটের মাঠে খুব একটা দেখা যাচ্ছে না নুরুন্নেমাকে। এ আসনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও টানা তিনবারের এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর সঙ্গে মাঠ কাঁপাচ্ছেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। ডালিয়াও ভোটের আগে থেকে দুই উপজেলায় সক্রিয়।

আসনটিতে আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীই এখন চারজন। মাহি ও ডালিয়া ছাড়া অন্য দুজন হলেন- আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান আক্তার ও গোলাম রাব্বানী। আখতারুজ্জামানেরও মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে গিয়েছিল। প্রচার শুরুর চার দিন পর তিনি প্রার্থিতা ফিরে পান। আর ডালিয়া ফিরে পেলেন এক সপ্তাহ পর। ডালিয়া পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সহধর্মিনী। শাহরিয়ার আলম রাজশাহী-৬ (বাঘা-চারঘাট) আসনে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন।

ডালিয়া আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপকমিটির সদস্য। যাচাই-বাছাইয়ে তার মনোনয়ন বাতিল হয়েছিল। নির্বাচন কমিশনেও আপিল করে প্রার্থিতা ফিরে পাননি। শেষে উচ্চ আদালত থেকে তিনি প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে তাকে ‘বেলুন’ প্রতীক বরাদ্দ দেন রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ।

প্রতীক বরাদ্দ নিয়ে ডালিয়া নির্বাচনি প্রচারণা শুরু করেছেন। প্রচারণা শুরুর আগে রাজশাহী নগরীর কাদিরগঞ্জে জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এরপর গোদাগাড়ী উপজেলার দুটি ইউনিয়নে গণসংযোগ করেন।

প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী আয়েশা আক্তার ডালিয়া বলেন, আমি রাজশাহী-১ আসনে বেশ কয়েক বছর ধরে সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করছি। গত ১২ বছর থেকে ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে অবহেলিত এই অঞ্চলে কাজ করছি। এই অঞ্চলের সাধারণ মানুষ আমার শক্তি। আমি ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে পিছিয়ে গিয়েছি। আমার মাঠ তৈরি করা আছে গত চার বছর থেকে। এলাকার মানুষদের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করেছি। যাদের জন্য কাজ করেছি, যাদের ভালোবেসেছি মায়া-মমতা দেখিয়েছি, যারা আমাকে ভালোবেসেছেন তারা আমাকে ভোট দিয়ে জিতিয়ে নিয়ে আসবেন।

রাজশাহী-১ আসনে এখন সবমিলিয়ে ১১ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। রাজশাহীর ছয়টি সংসদীয় আসনের মধ্যে এখানেই সবচেয়ে বেশি প্রার্থী। শুধু এই আসনেই তিনজন নারী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ আসনের স্বতন্ত্র চার প্রার্থীই আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন।

কেয়া/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়