ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

ঠাকুরগাঁও-২ 

তিন ভাই-বোনের লড়াই

মঈনুদ্দীন তালুকদার হিমেল, ঠাকুরগাঁও  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫৫, ১ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৬:০৫, ১ জানুয়ারি ২০২৪
তিন ভাই-বোনের লড়াই

ঠাকুরগাঁও-২ আসনে এবার এমপি প্রার্থী হয়েছেন একই পরিবারের তিন ভাই-বোন। তাদের প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠেছে নির্বাচনি মাঠ। নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তারা। নিজেকে যোগ্য দাবিতে একে অন্যের দিকে করছেন কাদা ছোড়াছুড়ি। 

ঠাকুরগাঁওয়ের বালীয়াডাঙ্গী, হরিপুর উপজেলা ও রাণীশংকৈল উপজেলার দুটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সংসদীয় ঠাকুরগাঁও আসন-২। ৩৫ বছর ধরে এই আসনের সংসদ সদস্য দবিরুল ইসলাম। এতো দীর্ঘ সময় আসনটিতে দবিরুলের বিপরীতে কোনো শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী দাঁড়াতে পারেননি। তবে, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে তিনি নিজেকে সরিয়ে নিয়েছে। এবার ছেড়ে দেওয়া আসনে লড়ছেন দাবিরুলের বড় ছেলে, ভাতিজা ও ভাগ্নি।

এই আসনে ‘নৌকা’র টিকেট দেওয়া হয়েছে দাবিরুলের ছেলে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাজহারুল ইসলামকে। ‘ট্রাক’ প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন দবিরুল ইসলামের মেজো ভাইয়ের ছেলে ও সদ্য পদত্যাগ করা উপজেলা চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা আলী আসলাম জুয়েল ও জাতীয় পার্টি মনোনীত ‘লাঙ্গল’ প্রতীকে ছোট বোনের মেয়ে নুরুন নাহার বেগম নির্বাচন করছেন।

‘ট্রাক’ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আলী আসলাম জুয়েল বলেন, নৌকার নেতাকর্মীরা নানাভাবে আমাদের প্রচারণার কাজে বাধা দিচ্ছেন। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি জয়যুক্ত হব।

জাতীয় পার্টি মনোনীত ‘লাঙ্গল’ প্রতীকের প্রার্থী নুরুন নাহার বেগম বলেন, মানুষ পরিবর্তন চায়। ভাটাররা ভোট দিতে আসতে পারলে জয়ী হব। এবার পরিবর্তনের আশায় সকলে লাঙ্গল প্রতীকে ভোট দিবে। 

এ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মাজহারুল ইসলাম বলেন, দেশে নৌকার কোনো বিকল্প নেই। এই অঞ্চলেও নৌকার কোনো বিকল্প নেই। এলাকায় যা উন্নয়ন হয়েছে সব দবিরুল ইসলাম এমপির হাত ধরে হয়েছে। সেই কারণে আগামী নির্বাচনেও নৌকাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করবেন ভোটাররা।’

নানা প্রতিশ্রুতি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ঘুরে আঁচল পেতে বসছেন প্রার্থীরা। অপরদিকে যোগ্য প্রার্থীর হিসাব কষছেন ভোটাররা। উত্তরের ভোটের যাদুকর খ্যাত দবিরুলের আসনে কে হবেন এমপি ছেলে, ভাতিজা না ভাগ্নি সেটাই এবার দেখার পালা।

ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সাতবারের সংসদ সদস্য দবিরুল ইসলাম বলেন, ‘৩৫ বছর ধরে এ এলাকার মানুষের সেবা দিয়ে আসছি। বাধ্যকজনিত কারণে আমার পরিবর্তে এবারে আমার ছেলেকে আওয়ামী লীগের ‘নৌকা’ প্রতীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। আমার বাকি কাজ সমাপ্ত করতে নৌকা প্রতীককে আগের ন্যায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন এলাকাবাসী।’

ঠাকুরগাঁওয়ের তিনটি সংসদীয় আসনে ১৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বি করছেন। তার মধ্যে দলীয় প্রতীকে ১০ জন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ৩ জন লড়ছেন। আসন্ন নির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-২ আসনে ১০৪টি ভোট কেন্দ্রে ৩ লাখ ১৮ হাজার ৬২০ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৫৪ হাজার ৪৩৭ জন ও পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৬৪ হাজার ১৮৩ জন।

মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়