ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

ফরিদপুর-১ 

স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে ৫ ইউপি চেয়ারম্যান

ফরিদপুর সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:১৩, ১ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৭:৩৫, ১ জানুয়ারি ২০২৪
স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে ৫ ইউপি চেয়ারম্যান

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-১ আসনে ত্রিমুখী প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এই আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান, চারবারের সংসদ সদস্য ও বিএনএমের প্রার্থী বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ মো. আবু জাফর এবং ‘ঈগল’ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সাবেক সহ-সভাপতি আরিফুর রহমান দোলনের মধ্যে ভোটের লড়াই হবে বলে মনে করছেন স্থানীয় লোকজন। এদিকে, ভোটের ছয়দিন বাকি থাকতেই বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগ সমর্থিত পাঁচ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ঘোষণা দিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে যোগ দিয়েছেন।

বোয়ালমারী, মধুখালী ও আলফাডাঙ্গা এই তিন উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-১ আসন।  

স্বতন্ত্র প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়া চেয়ারম্যানরা হলেন- বোয়ালমারী উপজেলার শেখর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. কামাল আহমেদ, বোয়ালমারী সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হক, ঘোষপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমরান হোসেন নবাব, চতুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম ও রূপাপাত ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান সোনা।

রোববার (৩১ ডিসেম্বর) পাঁচ ইউপি চেয়ারম্যান একজোট হয়ে ঈগল প্রতীকের প্রার্থী আরিফুর রহমান দোলনের সঙ্গে দেখা করেন। দোলনকে সমর্থন দিয়ে ঈগল প্রতীকের জয় নিশ্চিত করার ঘোষণা দেন তারা। 

ফরিদপুর-১ আসনের ভোটাররা জানান, কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান দোলন প্রার্থী হওয়ায় এই আসনে ভোটের হিসাব পাল্টে গেছে। ক্লিন ইমেজ ও সর্বসাধারণের কাছে গ্রহণযোগ্যতায় দোলন পিছিয়ে দিয়েছেন হেভিওয়েট অপর দুই প্রার্থীকে। জনপ্রতিনিধি না হয়েও দোলন গত দুই দশক ধরে কাঞ্চন মুন্সী ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ফরিদপুর-১ আসনের সর্বস্তরের মানুষের কল্যাণে বহুমুখী কাজ চালিয়ে আসছেন। 

স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে যোগ দেওয়ার বিষয়ে চতুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘তিনি (দোলন) অন্য প্রার্থীর তুলনা মানুষের জন্য বেশি কাজ করেছেন। অনেকেই এমপি হয়ে সাধারণ মানুষের খোঁজ নেন না। দোলন সাহেব নতুন প্রার্থী তার প্রতি মানুষের আকাঙ্খা অনেক বেশি। এছাড়াও, তিনি কর্মী বান্ধব। এলাকার সাধারণ মানুষ সব সময় তাকে কাছে পায়। আমরা সাধারণ মানুষের রাজনীতি করি, যে কারণে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছি।’ 

এ প্রসঙ্গে স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফুর রহমান দোলন বলেন, ‘আমি এই আসনে নতুন প্রার্থী। দীঘ সময় মানুষে পাশে থেকে কাজ করেছি। সুখে-দুঃখে তাদের সঙ্গে ছিলাম। যখন স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের এমপিকে কাছে পাননি, তখন তারা আমাকে পেয়েছেন।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘পাঁচ ইউপি চেয়ারম্যান ঈগলের পক্ষে কাজ করায় আমাদের কর্মীদের উৎসাহ আরও বেড়েছে। এই আসনের অনেক জনপ্রতিনিধি আমাদের সঙ্গে রয়েছেন। মানুষও চায় পরিতর্বন। মহান আল্লাহ সহায় হলে অবশ্যই বিজয়ের মালা আমরা পড়বো।’ 

তামিম/মাসুদ

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়