ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

ফেনী-৩ আসন

‘ওয়ান ইলেভেনের খলনায়ক কি করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হন’

ফেনী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৫৬, ২ জানুয়ারি ২০২৪  
‘ওয়ান ইলেভেনের খলনায়ক কি করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হন’

‘ওয়ান ইলেভেনের কোনো খলনায়ক আওয়ামী লীগের প্রার্থী হতে পারেন না।’

সোমবার (১ জানুয়ারি) রাতে ফেনীর দাগনভূঞা পৌর শহরে নির্বাচনি অফিস উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন ফেনী-৩ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী ও সৌদির জেদ্দা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হাজি রহিম উল্যাহ।

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফেনী-৩ আসনে মহাজোট মনোনীত জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য লে.জেনারেল (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীকে ওয়ান ইলেভেনের খলনায়ক উল্লেখ করে তিনি বলেন, মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী জাতীয় পার্টির প্রার্থী, তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী নন। কিছু অতিউৎসাহী নেতাকর্মী তাকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বলে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী ১/১১’র খলনায়ক। তিনি অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী ফখরুদ্দিন, মঈন উদ্দিনের সহচর ছিলেন।

ফেনী-৩ আসনের আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের উদ্দেশে রহিম উল্ল্যাহ বলেন, আপনারা আজ লাঙ্গলের প্রার্থীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে অপপ্রচার করছেন। তা থেকে বিরত থাকুন। তিনি মইন উদ্দিন ও ফখরুদ্দিনের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করেছেন। তিনি আমাদের নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে তৎকালীন ১/১১’র সময় নির্বাসনে পাঠিয়েছেন। আর সেই লোক কীভাবে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হন? আওয়ামী লীগের কোনো নেতাকর্মী এই অবৈধ ক্ষমতা দখলকারীর পক্ষে কাজ করতে পারে না।

মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে ধরে রহিম উল্যাহ আরও বলেন, তিনি গত পাঁচ বছর এই আসনের এমপি থাকাকালীন উন্নয়নের পরিবর্তে তিনি ও তার ভাইকে দিয়ে লুটপাট করিয়েছেন। তিনি তার ভাইকে দিয়ে সরকারি সব প্রকল্পের ৬০% অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। টিআর, কাবিখা ও কাবিটা প্রকল্পের ৬০% অর্থ প্রকল্প কমিটির কাছ থেকে অগ্রিম নিয়ে তারপর বরাদ্দ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীর ছোট ভাই সাইফ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, হাজী রহিম উল্যাহ মিথ্যাচার করে ভোটারদের বিভ্রান্ত করছেন। তার এই বক্তব্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

সাহাব/ফয়সাল

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়