ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৬ ১৪৩১

ইসির নির্দেশে পাবনায় আ.লীগ ও ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

পাবনা প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৫৪, ২ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ২১:১৭, ২ জানুয়ারি ২০২৪
ইসির নির্দেশে পাবনায় আ.লীগ ও ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

মিজানুর রহমান সবুজ ও নুর ইসলাম মিন্টু

নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টু ও পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে মঙ্গলবার (০২ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় পাবনার ৪নং আমলী আদালত এবং রাতে চাটমোহর থানায় দুটি মামলা করা হয়। ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান ও চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন মামলা দায়েরের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে তিনি নিজে বাদী হয়ে মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টুর বিরুদ্ধে ৪নং আমলী আদালত (চাটমোহর-ভাঙ্গুড়া) এ মামলা করেন। 

তিনি আরও জানান, আদালতের বিচারক ফারহানা ইয়ামীম মামলা আমলে নিয়ে শুনানি শেষে আসামির বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। আগামী ১৪ জানুয়ারি আসামি নুর ইসলাম মিন্টুকে আদালতে হাজিরের নির্দেশ দিয়েছেন। 

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ১৭ ডিসেম্বর ভাঙ্গুড়া উপজেলার মল্লিকচক গ্রামে স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় সভায় মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টু বক্তব্য দেন। তাতে তিনি ‘ভোট হবে একমাত্র নৌকার, এর বাইরে কোনো লোক বা এজেন্ট থাকবে না। আফসারের সাঙ্গ পাঙ্গদের হাড়-হাড্ডি ভেঙ্গে এলাকা থেকে শেষ করে দিবেন’ মর্মে হুমকি ও উসকানি দেন। 

তার এই বক্তব্য সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীর আচরণ বিধিমালার লঙ্ঘন মর্মে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটি নির্বাচন কমিশনে (ইসি) প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচনি আচরণবিধিমালা লঙ্ঘনের অভিযোগে বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার নির্দেশ দেয় নির্বাচন কমিশন।

সোমবার (০১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) মোঃ আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত চিঠিতে ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। সেই নির্দেশের আলোকে মামলা করেন ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।

একইভাবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজের বিরুদ্ধে চাটমোহর থানায় মামলা করা হয়েছে। চাটমোহর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন বাদী হয়ে মঙ্গলবার (০২ জানুয়ারি) রাতে মামলা করেন। 

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গত ২ ডিসেম্বর চাটমোহর উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে পথসভায় মিজানুর রহমান সবুজ ‘পাবনা-৩ আসনে মকবুল চাচা ছাড়া কেউ ভোট করতে পারবে না। যারা নৌকার বিরুদ্ধে অবস্থান করবে, তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলাম’ মর্মে হুমকি ও উসকানিমূলক বক্তব্য দেন।

তার এই বক্তব্য সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল এবং প্রার্থীর আচরণ বিধিমালার লঙ্ঘন মর্মে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটি নির্বাচন কমিশনে প্রতিবেদন দাখিল করেন। তার প্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট থানায় এজাহার দায়েরের জন্য নির্দেশ দেন নির্বাচন কমিশন।

সোমবার (০১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপ-সচিব (আইন) মোঃ আব্দুছ ছালাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ভাঙ্গুড়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে এ নির্দেশ দেয়া হয়। 

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম রেজা বলেন, ‘মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নং ৬। তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হবে।’

এ বিষয়ে মন্ডতোষ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম মিন্টুর সঙ্গে কথা বলতে তার মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান সবুজ বলেন, ‘মামলার বিষয়টি অবহিত হয়েছি। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। আইনগতভাবেই আদালতে বক্তব্য উপস্থাপন করব। আর এই মামলা প্রমাণ করে এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হবে।’
 

শাহীন/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়