ঢাকা     মঙ্গলবার   ১৬ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৩ ১৪৩১

শেরপুরের সুগন্ধি চাল বিদেশে রপ্তানির দাবি

শেরপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:০২, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  
শেরপুরের সুগন্ধি চাল বিদেশে রপ্তানির দাবি

শেরপুরের জিআই পণ্য সুগন্ধি চাল তুলশীমালা বিদেশে রপ্তানির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) শেরপুর জেলা আতপ চাল ক্রাশিং ব্যবসায়ী সমিতি দুপুরে শেরপুর পৌর টাউন হল অডিটোরিয়ামে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসায়ীরা বলেন, শেরপুর জেলা সুগন্ধি চালের জন্য বিখ্যাত। ইতোমধ্যে শেরপুরের এই সুগন্ধি চাল (তুলশীমালা) ভৌগোলিক নির্দেশক পণ্যের তালিকায় (জিআই) স্থান পেয়েছে। অথচ এই সুগন্ধি চাল ব্যবসায়ীরা ন্যায্য মূল্যে বিক্রি করতে পারছেন না। একদিকে ক্রেতার অভাব। অন্যদিকে প্রচুর লোকসান।

ক্রেতার অভাবে প্রতিমণ পুরাতন তুলশীমালা চাল ৪ হাজার ৮ শত টাকার স্থলে ৩ হাজার ২ শত টাকায় এবং চিনিগুড়া চাল ৪ হাজার টাকার স্থলে ২ হাজার ২ শত টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে। তারপরও বাজারে সুগন্ধি চালের চাহিদা নেই। পুরাতন চাল বিক্রি না হওয়ার জন্য ব্যবসায়ীরা নতুন ধান ক্রয় করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। একদিকে ব্যবসায়ীদের প্রচুর লোকসান গুনতে হচ্ছে, অপরদিকে কৃষকরা ধানের ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে শেরপুর জেলা আতপ চাউল ক্রাশিং ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি বিনয় কুমার সাহা বলেন, সুগন্ধি ধানের বাজার বর্তমানে সিদ্ধ ধানের বাজার মূল্যের নিচে নেমে গেছে। দেশে প্রতি বছর প্রায় ১৮ থেকে ২০ লাখ টন সুগন্ধি চাল উৎপাদন হয়। যা দেশের চাহিদার তুলনায় কয়েক লাখ টন বেশি। অথচ দেশের রপ্তানি ১০ হাজার মেট্রিক টনের নিচে। ২০২৩ সনের ৩০ জুন থেকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে সুগন্ধি চাল রপ্তানি বন্ধ রাখে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু চালের বাজারে স্থিতিশীলতা আসার পরও দ্রুত পদক্ষেপ নিয়ে এই রপ্তানি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়নি। আমরা মনে করি এ বেহাল অবস্থা থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ হচ্ছে সুগন্ধি চাল সীমিত পরিসরে বিদেশে রপ্তানি করা। সুগন্ধি চাল রপ্তানির ফলে একদিকে সরকারের কোষাগারে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা আহরিত হবে। অপরদিকে ব্যবসায়ী ও কৃষক সমাজ উপকৃত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা পৌর মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন, সহ-সভাপতি আব্দুল হান্নান, সদস্যদের মধ্যে আলহাজ্ব দুলাল মিয়া, সুরেশ চন্দ্র দাস, এনামুল হক বকুল প্রমুখ।

তারিকুল/ফয়সাল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়