ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

প্রস্তুত হচ্ছে আড়ৎ, শিগগিরই জমবে কানসাটের আমবাজার

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:০০, ২৮ মে ২০২৪  
প্রস্তুত হচ্ছে আড়ৎ, শিগগিরই জমবে কানসাটের আমবাজার

চাঁপাইনবাবগঞ্জের সুমিষ্ট আম দেশজুড়েই সমাদৃত। জৈষ্ঠ মাসের শুরুর দিকে দেশের অন্যান্য জেলায় আম কেনাবেচা হলেও এখনও শুরু হয়নি এই জেলায়। এরই মধ্যে দেশের বৃহত্তম আমবাজার কানসাটে আমের আড়ত তৈরি ও মেরামতের কর্মযজ্ঞ চলছে পুরোদমে। জুনের প্রথম সপ্তাহের পরই বাজারে নামতে পারে এমনই আশা কৃষি বিপণন কর্মকর্তাদের।

সরেজমিনে দেখা যায়, এখনো এই বাজারে আম বেচাকেনা শুরু হয়নি। তবে আড়তদাররা আগাম প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কেউবা নতুন করে আড়ৎ তৈরি করছেন। আবার কেউ আগের আড়তের ঘরগুলো ঠিক করায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। বেশিরভাগ আড়তগুলোর নির্মাণ হচ্ছে টিনের চালা দিয়ে।

এ সময় আড়তদাররা জানার, প্রতি বছরই আমের আড়ৎ প্রস্তুতের কাজ হয়। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। আবহাওয়ার কারণে এবার আম একটু দেরিতে পাকছে। তবে খুব শিগগিরই বাজারে আম বেচাকেনার কর্মযজ্ঞ শুরু হবে। যদিও গতবাররের তুলনায় এবার আমের ফলন কম হয়েছে।

শিবগঞ্জের শ্যামপুর-বাবুপুর এলাকার শরীফুল ইসলাম প্রায় ১৫ বছর ধরে আম ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। তিনি বলেন, কিছু কিছু বাগানে আম পাকতে শুরু করেছে। যে কারণে এখন থেকেই আড়ৎ মেরামত করা হচ্ছে। শিগগিরই কানসাটের বাজার আমে পরিপূর্ণ হয়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ছাড়াও অন্যান্য জেলায় আম উৎপাদন বেড়ে গেছে। ফলে ওই সব জেলাতেও আমের আড়ৎ তৈরি করা হচ্ছে।

আরেক আড়তদার মামুন আলী বলেন, গত বছর টিনের চালা দিয়ে আড়ৎ করে প্রায় কয়েক কোটি টাকার আমের ব্যবসা করেছি। তখন আয়ও হয়েছিলো ভালো। দীর্ঘদিন ঘরটি ব্যবহার না করায় টিনের কিছু অংশ ছিদ্র হয়ে গেছে। এবারও আড়ৎ মেরামত করছি।

তিনি আরও বলেন, এখানকার আম সবার চেয়ে সেরা। সেজন্য দেশের বিভিন্ন স্থানে অন্য এলাকার আম চাঁপাইনবাবগঞ্জের বলে বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু কানসাট এলাকার আম এখনো বাজারে আসেনি। তবে শিগগির বাজারে আসবে এ এলাকার সুস্বাদু আম।

মুক্তা মিয়া নামে এক শ্রমিক জানান, কানসাটের আড়তের জন্য ঘর তৈরি ও মেরামতের কাজ চলছে। ইতিমধ্যে অনেকের কাজ প্রায় শেষ হয়ে গেছে। এখন শুধু বাজারে আম নামার অপেক্ষা। কিছুদিনের মধ্যে কানসাটে আম বাজার জমজমাট  হয়ে উঠবে।

কানসাট আম আড়তদার ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক টিপু বলেন, বাজারে এখনো আম বেচাকেনা শুরু হয়নি। তব ব্যবসায়ীরা প্রস্তুতি নিচ্ছেন। খুব শিগগিরই আম বেচাকেনা শুরু হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম জুনের প্রথম সপ্তাহের পরেই বাজারে নামতে পারে বলে জানিয়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের কৃষি বিপণন কর্মকর্তা মোকাব্বের আলম নাঈম। তিনি বলেন, গতবারের তুলনায় এবার আমের ফলন কম। ফলে আমের দাম বাড়তে পারে।

চলতি বছরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ৩৭ হাজার ৬০৪ হেক্টর জমিতে আমের চাষাবাদ হচ্ছে। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে প্রায় সাড়ে ৪ লাখ মেট্রিক টন। যা গত বছরের তুলনায় প্রায় ২৫ হাজার মেট্রিক টন বেশি।

/মেহেদী/ইমন/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়