Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     শনিবার   ১৬ অক্টোবর ২০২১ ||  কার্তিক ১ ১৪২৮ ||  ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘মান সনদের জন্য বিদেশ যাবেন ব্যবসায়ীরা’

নিজস্ব প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:৫৫, ১৪ অক্টোবর ২০২১  
‘মান সনদের জন্য বিদেশ যাবেন ব্যবসায়ীরা’

ফাইল ছবি

বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশনের (বিএসটিআই) সক্ষমতার অভাবে রপ্তানি পণ্যের মান সনদের জন্য ব্যবসায়ীদের বিদেশে প্রচুর টাকা ব্যয় করতে হচ্ছে বলে দাবি করেছেন- এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন।

বৃহষ্পতিবার (১৪ অক্টোবর) ৫২তম বিশ্ব মান দিবস উপলক্ষে রাজধানীর বিএসটিআই কার্যালয়ে এক সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এই দাবি করেন। ‘সমন্বিত উদ্যোগে টেকসই উন্নত বিশ্ব বিনির্মাণে-মান’ প্রতিপাদ্যে নিয়ে দেশে এবারের বিশ্ব মান দিবস পালিত হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন- শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, বিশেষ অতিথি ছিলেন- শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার, শিল্পসচিব- জাকিয়া সুলতানা। সভাপতিত্ব করেন-বিএসটিআই’র মহাপরিচালক ড. মো. নজুরুল আনোয়ার।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন- রপ্তানি বাজারে প্রতিযোগিতায় উন্নতির লক্ষ্যে বিএসটিআই’র সক্ষমতা বৃদ্ধি ও একটি আন্তর্জাতিক মানের ল্যাবরেটরি গঠন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘শিল্প উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন পণ্যের ল্যাব টেস্টে প্রচুর টাকা বিদেশে খরচ করতে হয়। যদি বিএসটিআইয়ের সক্ষমতা থাকতো তাহলে ল্যাব টেস্টের জন্য বিদেশ যেতে হতো না।’

তিনি বলেন, ‘বিশ্বব‌্যাপী কৃষি পণ্যের ব্যপক চাহিদা থাকলেও আমরা প্রবাসী বাংলাদেশিদের (এথনিক মার্কেট) বাইরে যেতে পারছি না। কারণ আমাদের পণ্যের মান যাচাইয়ের আন্তর্জাতিক মানের কোনো প্রতিষ্ঠান নেই। এজন্য বিএসটিআইকে আরও আধুনিক করে গড়ে তোলার বিকল্প নেই। প্রতিষ্ঠানটিতে একটি আন্তর্জাতিক মানের ল্যাবরেটরি তৈরি করতে হবে। কারণ, বিশ্ববাজারে পণ্য রপ্তানির জন্য আন্তর্জাতিক মানের সার্টিফিকেশন দরকার।’

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, ‘কৃষি ভিত্তিক পণ্য নিয়ে বিশ্ববাজারে যাওয়ার জন্য বিএসটিআইয়ের বিশ্বমানের সার্টিফিকেশন জরুরি। তবে বিএসটিআই ইসলামিক দেশগুলোতে হালাল পণ্যের রপ্তানি বাড়াতে সার্টিফিকেশন প্রদানের কাজ করছে।’

তিনি বলেন, ‘আধুনিক ও আন্তর্জাতিকভাবে গ্রহণযোগ্য ল্যাবরেটরি তৈরির জন্য আমরা একটা প্রকল্প নিতে পারি। এর জন্য প্রয়োজনে বিদেশি দাতা সংস্থাগুলোর সঙ্গে কথা বললে আমরা হয়তো সহযোগীতা পাবো। না পেলে নিজেদের টাকাতেই এটা করবো।’

শিল্পমন্ত্রী বলেন, ‘এখন শুধু প্রবাসীদের জন্য পণ্য পাঠালে হবে না, মানসম্মত পণ্য নিয়ে বিশ্ববাজারে ফাইট করতে হবে, রপ্তানি প্রসারিত করতে হবে। আমরা রোজা, ঈদকেন্দ্রিক বিএসটিআই দেখতে চাই না। আন্তর্জাতিক বাজারের জন্য কাজ করতে বিএসটিআইকে তৈরি হতে হবে।’

শিশির/সনি

সর্বশেষ