ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মিমির সাংসদ পদ নিয়ে বিতর্ক

বিনোদন ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-২৪ ১১:৩৬:২৩ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-২৪ ৪:২১:০৯ পিএম

টলিউড অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী। গত বছর যাদবপুর থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন এই অভিনেত্রী। সম্প্রতি বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের বাণিজ্যিক বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে সাংসদ পদ নিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েছেন মিমি চক্রবর্তী।

এ বিজ্ঞাপনে দেখা যায়, আয়নার সামনে বসে চুল বাঁধছেন মিমি। পেছন থেকে বিদ্যা বালান এসে বলেন, ‘এখনো চুল নিয়ে পড়ে?’ জবাবে মিমি বলেন, ‘আমি এখনো জনপ্রতিনিধি, তাই তার জন্য প্রয়োজন যোগ্য সিরিয়াসনেস।’

বিজ্ঞাপনের এই কথোপকথনে মিমি ‘জনপ্রতিনিধি’ শব্দ ব্যবহার করেছেন। ‘জনপ্রতিনিধি’ শব্দ নিয়েই শুরু হয়েছে ‘অফিস অব প্রফিট’ বিতর্ক। ভারতীয় সংবিধান বিশেষজ্ঞদের একজন বলেছেন, ‘সাংসদদের আদর্শ আচরণ বিধিতে যে ‘স্বার্থের সংঘাত’ সংক্রান্ত নিয়ম রয়েছে, তা মিমি পুরোপুরি লঙ্ঘন করেছেন। একটি বাণিজ্যিক সংস্থার স্বার্থে সাংসদ মিমি চক্রবর্তী তার জনপ্রতিনিধি পরিচয় ব্যবহার করতে পারেন না।’ অনেকে মনে করছেন, লোকসভার স্পিকার কিংবা এথিক্স কমিটির কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ পড়লে মিমি চক্রবর্তীকে জবাবদিহিতা করতে হতে পারে। তবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিতর্কিত বিজ্ঞাপন নিয়ে কোনো মন্তব্য করতে দেখা যায়নি।

এ প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন মিমি চক্রবর্তী। তার ভাষায়, ‘এসব নিয়মকানুন একেবারেই জানতাম না। শুটিংয়ের সময় আমাকে যা পড়তে বলা হয়েছিল তাই পড়েছি। বিজ্ঞাপনি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলে এই বিতর্কিত অংশটি বাদ দেওয়ার কথা বলব।’

এবারই প্রথম নয়, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হওয়ার সময়ই প্রশ্নের মুখে পড়েছিলেন মিমি চক্রবর্তী। সেটা পোশাক বিতর্ক থেকে গ্লাভস বিতর্ক পর্যন্ত গড়িয়েছিল।

 

ঢাকা/শান্ত

     
 
রাইজিংবিডি স্পেশাল ভিডিও