ঢাকা     শুক্রবার   ২০ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৯ ||  ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

ফোনালাপ ফাঁস, মুখ খুললেন মাহি

জ্যেষ্ঠ বিনোদন প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৪০, ৬ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ২২:৪৮, ৬ ডিসেম্বর ২০২১

গতকাল রাতে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, অভিনয়শিল্পী ইমন ও মাহির কথোপকথনের একটি অডিও ক্লিপ ছড়িয়ে গেছে অনলাইনে। অভিনেতা ইমন অডিওটির সত‌্যতাও শিকার করেন। এদিকে বিষয়টি নিয়ে অবশেষে মুখ খুললেন চিত্রনায়িকা মাহি। 

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) রাতে সৌদি আরব থেকে ফেসবুকে লাইভে এসে বিষয়টি পরিষ্কার করেছেন মাহি। বলেন, ‘আসসালামু আলাইকুম। আমি মাহিয়া মাহি। আমি এখন মক্কাতে হারাম শরিফে আছি। সবাই নিশ্চয়ই জানেন যে, আমরা ওমরা পালন করতে এসেছি এবং সেজন্যই তেমন একটা ফোন কল রিসিভ করা সম্ভব হচ্ছে না। আমি তেমন একটা ফোন হাতে রাখছি না। ইবাদত করতে এসেছি, সেটাই ঠিকমতো করতে চাই।’

‘আমি যেটা বলার জন্য ভিডিওটা করছি সেটা হচ্ছে, আমি সেদিনও ভীষণ বিব্রত ছিলাম, নিজের আত্মসম্মানবোধে কতটুকু আঘাত লেগেছে সেটা শুধু আমি জানি আর আমার আল্লাহ জানেন। আজকেও ভীষণভাবে বিব্রত।’

‘নিজের কাছে নিজে ছোট হয়েছি, দেশবাসীর কাছে আরও একবার ছোট হলাম। কিন্তু আপনারা নিজে থেকে একবার চিন্তা করে দেখবেন যে- এই ভাষার, ব্যবহারের প্রতিত্তুরে আমার আসলে কী দেয়া উচিৎ ছিল। কিছু বলার ভাষা আমার সেদিন ছিল না। আমি সেজন্যই কোনো প্রতিবাদ করিনি। নিজের মতো করে যেভাবে পাশ কাটিয়ে যাওয়া উচিত আমি চুপ করে থেকেছি, পাশ কাটিয়ে গেছি।

‘এটা ঠিক দুই বছর আগের একটি ঘটনা ছিল এবং আমি বরাবরের মতোই আল্লাহর কাছে বলেছি, আল্লাহ আমি কষ্ট পেয়েছি। যার মাধ্যমে কষ্ট পেয়েছি, কোনো না কোনো দিন সেই রেজাল্টটা তিনি পাবেন এবং তিনি পেয়েছেন। এটা প্রমাণিত। আলহামদুলিল্লাহ।’

ফাঁস হওয়া ফোনালাপে শোনা গেছে, প্রতিমন্ত্রী কথা বলছেন চিত্রনায়ক ইমন ও চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির সঙ্গে। মুরাদ হাসানের পুরো বক্তব্যে ছিল অজস্র অশালীন শব্দ।

এদিকে তুমুল সমালোচিত প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাকে মঙ্গলবারের মধ্যে পদ ছেড়ে দিতে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সৌদিতে করা ভিডিওতে মাহি কালো বোরখা এবং কালো মাস্ক পরে ছিলেন। সাংবাদিকদের ফোন ধরতে পারছেন না বলেই তিনি ভিডিওটি করেছেন বলে জানান। সবাইকে নিজেদের অবস্থান থেকে বিষয়টি চিন্তা করার আহ্বান জানিয়েছেন মাহি।

মাহি বলেন, ‘আল্লাহ সাক্ষী, আমার কোনো দোষ ছিল না। আমি পরিস্থিতির শিকার।’

ঢাকা/রাহাত সাইফুল/এনএইচ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়