ঢাকা, রবিবার, ১১ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

প্রজাদের বাঁচাতে মালির চাকরি নিলেন রাজা

শাহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০১-০৩ ৮:২৬:২৪ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০১-০৩ ৩:৫৫:৫৯ পিএম

প্রাচীন আমলের রাজা-বাদশাহ্‌র কাহিনি পড়লে দেখা যায়, সে সময় এমনও রাজা ছিলেন যারা নিজেদের সর্বস্ব প্রজাদের মাঝে বিলিয়ে দিতে কুণ্ঠিত হতেন না। নিজে অভুক্ত থেকে প্রজাদের মুখে অন্ন তুলে দিতেন। প্রজাবৎসল রাজা হিসেবে তারা ইতিহাসের পাতায় ঠাঁই করে নিয়েছেন।

সেসব দিন গত হয়েছে। এখন রাজা-প্রজা নয়, রাষ্ট্রপ্রধান-নাগরিকের সমাজ। তারপরও একথা বলা যায়- এমন একজন রাষ্ট্রপ্রধান খুঁজে পাওয়া কঠিন যিনি জনসাধারণের কল্যাণে সব উজাড় করে দিয়েছেন। তবে আশার কথা এই, এখনও এমন একজন আছেন। এই আধুনিক ভোগবাদী সমাজেও এমন একজন রাজার দেখা মিলেছে যিনি প্রজার কল্যাণে মালির কাজ করতেও দ্বিধা করেননি।

রাজা বা সেই গোত্র প্রধানের নাম এরিক মানু। তিনি পশ্চিম আফ্রিকার দেশ ঘানার আকান উপজাতি গোত্রের প্রধান। চাচা মারা যাবার পর মানু আকান গোত্রের প্রধান হন। তবে রাজার আসনে বসার আগে মানু বেশ কয়েক বছর স্ত্রী-পুত্র নিয়ে কানাডায় বাস করেছিলেন। কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়া রাজ্যের একটি কৃষি খামারে কর্মীর কাজ করতেন তিনি।

মানু দেশে ফিরে দায়িত্ব নিজ কাঁধে তুলে নেন। কয়েকদিন অতিবাহিত হওয়ার পর মানু গোত্রের মানুষদের স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন। তিনি লক্ষ‌্য করেন গোত্রে স্বাস্থ্য সেবার তীব্র অভাব রয়েছে। কিন্তু সঠিক স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার মতো টাকা তার কাছে ছিল না। ফলে বাধ্য হয়ে তিনি কঠিন এক সিদ্ধান্ত নেন। কানাডায় নিজের পুরাতন পেশায় ফিরে যান। এতে মানু বিপুল মানুষের প্রশংসা পান। কারণ যত দরিদ্র গোত্রই হোক না কেন, রাজা চাইলে গোত্রের মানুষকে বঞ্চিত করে নিজে ভালো থাকতে পারেন। কিন্তু মানু সে পথে না হেঁটে পরিশ্রম করে গোত্রের মানুষের কল্যাণ করতে চেয়েছেন।

বিশেষ করে তার কর্মস্থলের মালিক সুসান ওয়াটসন মানুর কাজে বেজায় সন্তুষ্ট। তিনি মানুর প্রতিষ্ঠিত ‘দি মুন অ্যান্ড ব্যাক’ ফাউন্ডেশন থেকে প্রতিষ্ঠিত স্কুলের শিশুদের জন্য বই-খাতা, কাপড়, ল্যাপটপ এবং বিপুল পরিমান চিকিৎসা সরঞ্জাম উপহার দেন।

সিটিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে মানু বলেন, ‘আমি যখন কর্মস্থলে ফিরে যাই, তখন আমার সহকর্মীরা আমাকে চিফ হিসেবে সম্মান করে। তারা আমাকে টিভিতে দেখেছে বলে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে। আমি আমার কাজের জন্য গর্বিত। এখানে কাজ করে যে অর্থ উপার্জন করব তা আমার গোত্রের মানুষের কল্যাণে বিনিয়োগ করব।’

 

ঢাকা/তারা