ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৮ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

করোনা ঠেকাতে অ্যান্টিবডি আবিষ্কার চীনা গবেষকদের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৪-০২ ১২:০৬:২৫ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৪-০২ ৫:৪২:৩৮ এএম

চীনের এক দল বিজ্ঞানী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কার্যকর কিছু অ্যান্টিবডির সন্ধান পেয়েছেন। এই অ্যান্টিবডি দেহকোষে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে‘অত্যন্ত কার্যকর’। ধারণা করা হচ্ছে, এই আবিষ্কার করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কিংবা এর চিকিৎসায় অত্যন্ত সহায়ক হবে।

করোনাভাইরাসে বিশ্বে তিন মাসে ৯ লাখের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। আর মারা গেছে ৪৫ হাজারের বেশি মানুষ। এ পর্যন্ত এই ভাইরাসের কোনো প্রতিষেধক আবিষ্কার হয়নি।

বেইজিংয়ের টিসিংহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ঝ্যাং লিনকি জানান,  তার একটি টিম অ্যান্টিবডির সমন্বয়ে একটি ওষুধ তৈরি করেছে। বর্তমানে করোনাভাইরাসের যেভাবে চিকিৎসা হচ্ছে এই ওষুধ তারচেয়ে বেশি কার্যকর।

জানুয়ারির প্রথম দিকে ঝ্যাংয়ের টিম এবং শেনঝেনের থার্ড পিপলস হাসপাতালের একটি দল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের পর সুস্থ হয়েছেন এমন মানুষদের রক্ত থেকে সংগৃহীত অ্যান্টিবডি বিশ্লেষণ শুরু করেন। তারা ২০৬টি মনোক্লোনাল অ্যান্টিবডি পৃথক করেন। দেখা যায় এই অ্যান্টিবডিগুলো করোনাভাইরাসের প্রোটিনের বিরুদ্ধে অত্যন্ত শক্তিশালী হয়ে কাজ করছে। পরে আরেকটি পরীক্ষায় দেখা হয়, এই অ্যান্টিবডিগুলো কোষে ভাইরাসের প্রবেশ ঠেকাতে সত্যিকারার্থে কার্যকর কিনা।

রয়টার্সকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ঝ্যাং বলেন, ‘এগুলোর মধ্যে প্রথম ২০টি বা একই ধাঁচের অ্যান্টিবডিগুলো পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, ভাইরাসের শক্তিশালী প্রবেশ চারটি ঠেকাতে পেরেছে এবং দুটি একই কাজ করতে ‘মাত্রাতিরিক্ত ভালো’ ভূমিকা পালন করেছে।’

গবেষকদের এই দলটি এখন সবচেয়ে শক্তিশালী অ্যান্টিবডি চিহ্নিত করতে এবং এগুলো করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি ঠেকাতে কতটুকু কার্যকর ভূমিকা পালন করে তা জানার চেষ্টা করছেন।

সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে পরীক্ষার জন্য এই ওষুধের ব্যাপক উৎপাদন শুরু হবে। প্রথমে প্রাণির ওপর এবং পরবর্তীতে মানুষের প্রয়োগ করা হবে এই ওষুধ।

ড. ঝ্যাং বলেন, ‘ওষুধের বিশ্বে অনেক দশক আগেই অ্যান্টিবডির গুরুত্ব প্রমাণ হয়েছে। এগুলো ক্যান্সার ও সংক্রামক রোগের চিকিৎসায় ব্যবহার করা যেতে পারে।’


ঢাকা/শাহেদ