ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

গোপনাঙ্গে ছত্রাক সংক্রমণ শনাক্তের উপায়

এস এম ইকবাল || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫০, ৪ ডিসেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৫:৫২, ৪ ডিসেম্বর ২০২১
গোপনাঙ্গে ছত্রাক সংক্রমণ শনাক্তের উপায়

নারীর গোপনাঙ্গ ভ্যাজাইনাতে ইস্ট ইনফেকশন (ছত্রাক সংক্রমণ) হতে পারে। এই সংক্রমণে সাদা, ঝুরাঝুরা ও দইয়ের মতো স্রাব নির্গত হয়। এটা সংক্রামক নয় এবং যৌনমিলনে ছড়ায় না। এ প্রতিবেদনে ভ্যাজাইনার ছত্রাক সংক্রমণ শনাক্তের উপায় ও চিকিৎসা উল্লেখ করা হলো।

ছত্রাক সংক্রমণ জনিত স্রাবের ধরন

দুধ ফেটে গেলে যেরকম ছানাছানা হয়ে যায়, ভ্যাজাইনার ছত্রাক সংক্রমণ দেখতে তেমনই। এই স্রাব শুঁকলে পাউরুটির ঘ্রাণের মতো গন্ধ পাবেন। এটা মনে রাখবেন যে, মাসিক চক্রের শুরু ও শেষে এক চা চামচ পরিমাণ পুরু, সাদা স্রাব নিঃসরণ স্বাভাবিক। কিন্তু স্রাবকে ফেটে যাওয়া দুধের অনুরূপ দেখালে এবং সেইসঙ্গে চুলকালে এটা ছত্রাক সংক্রমণ হতে পারে। পিরিয়ডের পর উন্নতির লক্ষণ দেখা যেতে পারে, কিন্তু সংক্রমণটির চিকিৎসা না করলে পুনরায় এই স্রাব বের হতে পারে। জানান যুক্তরাষ্ট্রের পার্পল হেলথ ফাউন্ডেশনের সিইও এবং পার্পল ফ্যামিলি হেলথের ফ্যামিলি ফিজিশিয়ান আনিতা রবি।

এ জাতীয় সাদা স্রাব ছাড়াও  ছত্রাক সংক্রমণের অন্যান্য উপসর্গ হলো- ভ্যাজাইনাতে র‍্যাশ ওঠা বা লাল হয়ে যাওয়া, যৌনমিলন বা প্রস্রাবের সময় জ্বালাপোড়া, ভ্যাজাইনাতে ব্যথা, ভালভা লাল হওয়া ও ফুলে যাওয়া এবং ভ্যাজাইনা ও ভালভাতে চুলকানি।

স্রাবে রক্ত দেখলে অথবা বাদামী/সবুজ স্রাব বের হলে চিকিৎসককে বলা উচিত। কারণ এটা ব্যাকটেরিয়াল ভ্যাজাইনোসিস বা যৌনবাহিত রোগের (যেমন- ক্লামাইডিয়া) লক্ষণ হতে পারে, বলেন ইয়েল স্কুল অব মেডিসিনের অবস্টেট্রিকস, গাইনিকোলজি অ্যান্ড রিপ্রোডাক্টিভ সায়েন্সেসের প্রধান হাগ টেইলর।

ছত্রাক সংক্রমণের চিকিৎসা

সহজেই ভ্যাজাইনার ছত্রাক সংক্রমণের চিকিৎসা করা যায়। এটা সারিয়ে তুলতে সর্বোচ্চ এক সপ্তাহ লাগতে পারে। প্রথমত ওটিসি ওষুধ মাইকোনাজোল ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এতে কাজ না হলে চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

ঢাকা/ফিরোজ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়