Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||  আশ্বিন ৭ ১৪২৮ ||  ১২ সফর ১৪৪৩

কী নিয়ে অপেক্ষা করছে করোনা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:২৪, ১ আগস্ট ২০২১   আপডেট: ১১:২৮, ১ আগস্ট ২০২১
কী নিয়ে অপেক্ষা করছে করোনা

ফাইল ছবি

করোনাকে কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না। কেনো এই মৃত্যু ও আক্রান্তের হার নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভবপর হচ্ছে না-এই প্রশ্নের উত্তরে মিরপুর এম আর খান শিশু হাসপাতালের অধ্যাপক ডা. ফরহাদ মনজুর বলেন,‘করোনা মহামারি ক্রমেই অক্টোপাসের মতো জড়িয়ে ধরছে আমাদের। সারা দেশেই ছড়িয়ে দিয়েছে তার ভয়াল থাবা।  দিন দিন সব ধরনের রেকর্ড ভেঙে বাড়ছে সংক্রমণ আর মৃতের সংখ্যা।  বিশ্বজুড়ে যেখানে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা দিন দিন কমছে, সেখানে আমাদের দেশে বাড়ছে সংক্রমণ এবং মৃতের সংখ্যা।  আশঙ্কা হচ্ছে, সামনের সময় সম্ভবত আরও ভয়াবহ’।

তিনি বলেন, ‘সারা দেশে যে হারে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়েছে, তাতে সবাইকে কঠোরভাবে লকডাউন মেনে চলা ছাড়া বিকল্প কোনো ব্যবস্থা নেই। সবাইকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে টিকা দেওয়ার পাশাপাশি ঘরে থাকতে হবে। না হলে আসছে এই আগস্টে পরিস্থিতি আরও ভয়ানক হয়ে পড়বে।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রয়োজনে লকডাউন আরও বাড়াতে হবে। সবাইকে এটা বুঝতে হবে, করোনা মহামারির মতো দেশময় ছড়িয়ে পড়েছে।  সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। প্রয়োজনে এই ব্যাপারে প্রশাসনকে আরও কঠোর হতে হবে।’

বুধবার (২৮ জুলাই) দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়েছে। শেষ ২৪ দিনে করোনা আক্রান্ত হয়ে (৪ থেকে ২৮ জুলাই) ৫ হাজারেরও বেশি মানুষের মারা গেছেন। গত ২৪ দিনে গড়ে প্রতিদিন করোনায় মারা গেছেন ২০৯ জন। ইতোমধ্যে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন ১২ লাখ ৪০ হাজার ১১৫ জন মানুষ।

অপরদিকে, করোনায় আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি সম্প্রতি রাজধানীতে বেড়েছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এই নিয়ে আশঙ্কা  প্রকাশ করেছেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেন, ‘আগস্ট মাস আমাদের জন্য অনেক প্রতিকূল হবে।’

গত বছরের মে, জুন, জুলাই এবং এই বছরের মে, জুন জুলাই মাসের আক্রান্ত এবং মৃত্যুর পরিসংখ্যান দেখলেই বোঝা যাচ্ছে, কী হারে সংক্রমণ আর মৃত্যুহার বাড়ছে।  গত বছর, এমন কী এ বছরের প্রথম দিকে মৃতের হিসেবে ৬০ বছরের উর্ধ্বে যাদের বয়স তাদের সংখ্যাই বেশি ছিল। কিন্তু গত ৩-৪ মাস ধরে চিত্রটা পাল্টেছে। এখন তরুণ প্রজন্ম বেশি করে আক্রান্ত হচ্ছেন এবং মারা যাচ্ছেন।

আইইডিসিআর’র পর্যবেক্ষণ বলছে, বাংলাদেশে বর্তমানে আক্রান্তদের মধ্যে প্রায় ৬৯ শতাংশই তরুণ-মধ্যবয়সী। তারা বলছেন, দেশে ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট, ইউকে ভ্যারিয়েন্ট এবং সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্টের কারণেই এমনটি হচ্ছে। আগে ১ জন থেকে ১০ জন সংক্রমিত হলেও এখন ভ্যারিয়েন্টের কারণে ১ জন থেকে ১৬ জন আক্রান্ত হচ্ছেন।

উল্লেখ্য, সারা দেশে গত ২০২০ সালের মে মাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯ হাজার ৫১৫ জন এবং মারা গেছেন ৪৮০ জন। আর ২০২১ সালের মে মাসে আক্রান্ত ৩৯ হাজার ৯৫৬ জন ও মারা গেছেন ১ হাজার ১০৯ জন।

২০২০ সালের জুন মাসে আক্রান্ত ৯৮ হাজার ৩৩০ জন ও মারা গেছেন ১ হাজার ১৯৭ জন।  জুন ২০২১ সালে আক্রান্ত ১ লাখ ১২ হাজার ৭১৮ জন ও মারা গেছেন ১ হাজার ৮৮৪ জন।

জুলাই ২০২০ সালে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮৩ হাজার ৭০২ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ১৫৩ জন।  আর ২০২১ সালের জুলাই মাসে আক্রান্ত হন ৩ লাখ ৩৬ হাজার ২৫৭ জন এবং মারা যান ৬ হাজার ১৮২ জন।  এ পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১২ লাখ ৪৯ হাজার ৪৮৪ জন এবং মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ৬৮৫ জন।

আশা এবং প্রার্থনা নিয়ে এখন অপেক্ষা, সামনে যেন করোনা কাবু হয়। 

/মেসবাহ/এমএম/

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়