ঢাকা     শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯ ||  ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩

সমন্বিত ও কার্যকর তামাক কর নীতিমালা গ্রহণ করার আহ্বান

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২২:৫০, ১৪ মে ২০২২  
সমন্বিত ও কার্যকর তামাক কর নীতিমালা গ্রহণ করার আহ্বান

তামাক নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন রাজনৈতিক অঙ্গীকার। এ অঙ্গীকারের অংশ হিসেবে ২০৪০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে তামাক মুক্ত করতে হলে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো কোম্পানিতে থাকা সরকারের বিনিয়োগ প্রত্যাহার করে নিতে হবে।

শনিবার (১৪ মে) তামাক কর নিয়ে এক গবেষণা ফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে বক্তারা এ কথা বলেন। 

সরকারকে সমন্বিত ও কার্যকর তামাক কর নীতিমালা গ্রহণ করতে হবে। কর নীতিমালায় সরকারকে, বিশেষ করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে তামাক কোম্পানির প্রতি আনুকূল্য প্রদর্শন বন্ধের আহ্বান জানান তারা। 

শনিবার ‘বাংলাদেশে তামাকজাত পণ্যের কর নির্ধারণ প্রক্রিয়ায় তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ’ শীর্ষক গবেষণার ফলাফল উপস্থাপনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে অধিকার-ভিত্তিক গবেষণা এবং অ্যাডভোকেসি সংস্থা ভয়েস গবেষণা ফলাফল প্রকাশ উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। 

অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন পিকেএসএফ-এর সভাপতি এবং বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলিকুজ্জামান আহমদ। 

বাংলাদেশে তামাক কর নীতিমালা তৈরির ক্ষেত্রে তামাক কোম্পানিগুলোর হস্তক্ষেপের ধরন বোঝার জন্য সাংবাদিক, নীতি নির্ধারক, গবেষক এবং তামাক নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কাজ করেন এমন ২৩ জনের সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে গবেষণাটি পরিচালনা করা হয় ২০২১ সালের মার্চ থেকে মে মাসের মধ্যে।

সভায় বক্তারা আরও বলেন, তামাক মুক্ত দেশ বাস্তবায়ন করতে হলে তামাক কোম্পানির লাভের রাজস্ব আয়ের চেয়ে জনস্বাস্থ্যকে অধিক গুরুত্ব দিতে হবে। 

আলোচনায় অংশ নিয়ে তামাক নিয়ন্ত্রণ ও নাগরিক অধিকার কর্মীরা বলেন এ লক্ষ্যে বৃটিশ আমেরিকান টোবাকো কোম্পনিতে থাকা সরকারের সমস্ত শেয়ার বিক্রি করে দিতে হবে এবং তাদের সাথে সরকারের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ত্যাগ করতে হবে। 

ভয়েস-এর নির্বাহী পরিচালক আহমেদ স্বপন মাহমুদ গবেষণার ফলাফল উপস্থাপন করে বলেন, কর নির্ধারণ প্রক্রিয়ায় তামাক কোম্পানির অবৈধ হস্তক্ষেপের অনেক তথ্য প্রমাণ বের হয়ে এসেছে গবেষণায়। 

গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা জানান, তামাক কর নীতিমালা সংস্কার প্রক্রিয়ায় তামাক কোম্পানিগুলোকে বেশি প্রাধান্য দেয়া হয়। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ততক্ষণ পর্যন্ত তামাক পণ্যের উপর নতুন করে কর নির্ধারণ করবে না, যতক্ষণ পর্যন্ত তারা তামাক কোম্পানিগুলোর সাথে কোনো চুক্তিতে না আসে। এর কারণ হিসেবে দেশের অর্থনীতিতে তামাক কোম্পনির অবদান উল্লেখ করা হয়।

ঢাকা/হাসান/সনি

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়