ঢাকা     শনিবার   ২২ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ৮ ১৪৩১

চা শিল্পের উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান 

বিশেষ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৩১, ৪ জুন ২০২৩  
চা শিল্পের উন্নয়নে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান 

শ্রীমঙ্গলে জাতীয় চা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রীসহ অন্যরা

দেশের চা শিল্পের উন্নয়ন ও প্রসার ঘটাতে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

রোববার (৪ মে) মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বিটিআরআই উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জাতীয় চা দিবস উদযাপন ও প্রথম জাতীয় চা পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তার পাঠানো সংবাদ বিঞ্জপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

টিপু মুনশি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ নজরদারি এবং নানামুখী উদ্যোগের ফলে দেশের চা খাত আজ টেকসই ও মজবুত অবস্থানে এসেছে। মানসম্পন্ন চা উৎপাদন বৃদ্ধি এবং আন্তর্জাতিক মানের গবেষণা কার্যক্রম জোরদারের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন শ্রমিকবান্ধব নেতা। গরিব-দুখী ও মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ে সারাজীবন আন্দোলন-সংগ্রাম করেছেন। চা শিল্পের সাথে প্রায় দেড় লাখ শ্রমিক জড়িত, তাদের অর্ধেকের বেশি নারী। এ শিল্পের সাথে তাদের ভাগ্য জড়িয়ে আছে। যেকোনো শিল্পের প্রাণ হচ্ছে শ্রমিক। তাদের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, চা শ্রমিকদের বেতন নিয়ে যে সমস্যা দেখা দিয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দায়িত্ব নিয়ে নিজে শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধি করেছেন এবং শ্রমিকরা তা মেনে নিয়েছেন।

টিপু মুনশি জানান, প্রতি বছর দেশে চায়ের চাহিদা ৫-৭ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ১৭ কোটি মানুষ এক কাপ করে চা পান করলেও ১৭ কোটি কাপ চা প্রয়োজন। আমরা একজন প্রতিদিন ৩-৪ কাপ চা পান করে থাকি। কিন্তু, চা উৎপাদন সে হারে বৃদ্ধি পায় না। এজন্য চা উৎপাদন বৃদ্ধি করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। 

চা শিল্পের অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ চা বোর্ড এবং এর অংশীজন হিসেবে চা বাগানের মালিক, চা উৎপাদনকারী এবং বিপণন কোম্পানিসহ চা শিল্পে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান/সংগঠনকে দেওয়া ‘জাতীয় চা পুরস্কার’ এ শিল্পের বিকাশ ও অগ্রযাত্রাকে আরও বেগবান করতে অনুপ্রাণিত করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

মন্ত্রী জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫৭ সালের ৪ জুন প্রথম বাঙালি হিসেবে বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যানের পদ অলঙ্কৃত করেন। পরবর্তীতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে চা শিল্পে অসামান্য অবদান রাখেন। চা শিল্পে বঙ্গবন্ধুর অবদানকে স্মরণীয় করে রাখতে প্রতিবছর ৪ জুন চা দিবস পালন করা হয়।

এর আগে দেশের চা শিল্পের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় প্রথমবারের মতো এক ব্যক্তি ও সাত প্রতিষ্ঠানকে ‘জাতীয় চা পুরস্কার’ দেওয়া হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি ও সাবেক চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড. মো. আব্দুস শহীদ।  এছাড়া, বাংলাদেশ চা বোর্ডের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. আশরাফুল ইসলাম, এফবিসিসিআই’র সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন, টি ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের সভাপতি শাহ মঈনুদ্দিন হাসান এবং বাংলাদেশ চা সংসদের সভাপতি কামরান টি রহমান অন্যান্যের মধ্য বক্তব্য রাখেন।

পরে বাণিজ্যমন্ত্রী জাতীয় চা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত চা মেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন।

হাসনাত/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়