ঢাকা     শুক্রবার   ১৯ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৪ ১৪৩১

ডিএনসিসির ৩ কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:৪০, ২১ আগস্ট ২০২৩   আপডেট: ২২:০৭, ২১ আগস্ট ২০২৩
ডিএনসিসির ৩ কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে মশা নিধনের ব্যাকটেরিয়া আমদানিতে টেন্ডার প্রক্রিয়ায় ‘পিপিআর’ অনুযায়ী সকল কাগজপত্র দেখে মূল্যায়ন হয়েছে কিনা এবং  ‘পিপিআর’র কোনও ব্যত্যয় হয়েছে কি না- এ বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়ে টেন্ডার মূল্যায়ন কমিটির তিন কর্মকর্তাকে শোকজ করা হয়েছে।

সোমবার (২১ আগস্ট) বিকেলে তাদের এ নোটিশ দেওয়া হয় বলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন সূত্রে জানা গেছে। 

জানা গেছে, ডিএনসিসির এই তিন কর্মকর্তা হলেন-ডিএনসিসির স্বাস্থ্য বিভাগের সাবেক প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বিগেডিয়ার জেনারেল জুবায়দুর রহমান, প্রধান ভাণ্ডার কর্মকর্তা রমেন্দ্রনাথ বিশ্বাস এবং সহকারী ভাণ্ডার ও ক্রয় কর্মকর্তা রাহাত আল ফয়সাল। নোটিশে তাদের আগামী ৭দিনের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ আগস্ট এডিস মশার লার্ভা নিধনের ‘বিটিআই’ আমদানিতে প্রতারণার আশ্রয় নেওয়ায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মার্শাল অ্যাগ্রোভেট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজকে কালো তালিকাভুক্ত করে ডিএনসিসি।

ডিএনসিসির এক অফিস আদেশে বলা হয়েছে, সরবরাহকৃত বিটিআই বেস্ট কেমিক্যালের উৎপাদিত এবং সরবরাহকৃত কি না, এ সংক্রান্ত সব প্রমাণ দাখিল ও বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য মার্শাল অ্যাগ্রোভেট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজকে পরপর দুটি চিঠি দেওয়া হয়। চিঠির বিষয়ে মশক নিধন কীটনাশক ও যন্ত্রপাতি কারিগরি ও যাচাই কমিটির ১৭ আগস্টের সভায় পর্যালোচনা করা হয়।

পর্যালোচনায় দেখা যায়, সরবরাহ করা বিটিআই সিঙ্গাপুরের বেস্ট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজে উৎপাদিত বলে কোনো প্রমাণ দাখিল করতে পারেনি মার্শাল অ্যাগ্রোভেট।

অফিস আদেশে আরও বলা হয়, ভাণ্ডার ও ক্রয় বিভাগের দাপ্তরিক ই-মেইল থেকে সিঙ্গাপুরের বেস্ট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। তারা জানায়, বেস্ট কেমিক্যাল থেকে এসব মাল মার্শাল অ্যাগ্রোভেটকে সরবরাহ করা হয়নি। মার্শাল অ্যাগ্রোভেট তাদের নিযুক্ত পরিবেশক নয়। এছাড়া লি কিয়াং নামের এক ব্যক্তিকে বেস্ট কেমিক্যালের রপ্তানি ব্যবস্থাপক বলে দাবি করা হয়েছিল। তিনি বেস্ট কেমিক্যালের কর্মচারী নন।

এ জালিয়াতির অভিযোগ ও টেন্ডার প্রক্রিয়াসহ সার্বিক বিষয় তদন্ত করতে তিন সদস্যের একটি কমিটি করা হয়েছে বলে ডিএনসিসির অফিস আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, এ কমিটির আহ্বায়ক ডিএনসিসির অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. শরীফ উদ্দীন। আগামী ১০ দিনের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

সম্প্রতি ঢাকা উত্তর সিটির আমদানি করা বিটিআই নিয়ে জালিয়াতির অভিযোগ ওঠে। তবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মার্শাল অ্যাগ্রোভেট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড দাবি করে, তাদের সরবরাহ করা পাঁচ হাজার কেজি বিটিআই সিঙ্গাপুরের বেস্ট কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজের উৎপাদিত। তবে সেটা সত্য নয় বলে জানায় বেস্ট কেমিক্যাল লিমিটেড। এ নিয়ে সিঙ্গাপুরের ওই কোম্পানি নিজেদের ফেসবুক পেজে একটি সতর্ক বার্তাও দিয়েছে।

/মেয়া/এসবি/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়