ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

বরেণ্য চিত্রগ্রাহক আফজাল চৌধুরীর মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:১৬, ১ সেপ্টেম্বর ২০২৩  
বরেণ্য চিত্রগ্রাহক আফজাল চৌধুরীর মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এবং আফজাল চৌধুরী

বরেণ্য চিত্রগ্রাহক আফজাল চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। এক শোকবার্তায় তিনি মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

আফজাল চৌধুরী বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) রাজধানীর একটি হাসপাতালে মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।

আফজাল চৌধুরীর জন্ম ১৯৩১ সালে সিরাজগঞ্জে। ছোটবেলা থেকেই তিনি ফটোগ্রাফি করতেন। চলচ্চিত্রে কাজ করার ইচ্ছে নিয়ে তিনি ১৯৫০ সালে বোম্বে (বর্তমানে মুম্বাই) যান। সেখানে বিখ্যাত চিত্রগ্রাহক জাল মিস্ত্রি ও ফলি মিস্ত্রির সঙ্গে কাজ করেন। এরপর লাহোর ও করাচিতে কাজ করেন। ১৯৬০ সালে জহির রায়হানের চিঠি পেয়ে ঢাকায় আসেন তার ‘কাচের দেয়াল’ চলচ্চিত্রের চিত্রগ্রহণের জন্য। এটিই ঢাকায় তার প্রথম চিত্রায়িত চলচ্চিত্র। এরপর ঢাকায় বহু ছবির চিত্রগ্রহণ করেন জহির রায়হান ও অন্য পরিচালকদের চলচ্চিত্রে। তৎকালীন উভয় পাকিস্তানের প্রথম আংশিক রঙিন ‘গুলে বাঁকালি’ (১৯৬১), প্রথম এক শটের গানের ‘ওয়াফা কি ইয়াদা’ , বাংলাদেশের প্রথম ‘লো-কি’ সিনেমাটোগ্রাফি ‘কাঁচের দেয়াল’ (১৯৬৩), প্রথম সম্পূর্ণ রঙিন চলচ্চিত্র ‘সঙ্গম’ (১৯৬৪), প্রথম সিনেমাস্কোপ চলচ্চিত্র ‘বাহানা’ (১৯৬৫), প্রথম ‘ট্রিপল রোল’–এর চলচ্চিত্র ‘জ্বলতে সুরুজ কে নিচে’ (১৯৭০) ‘উজ্জ্বল সূর্যের নীচে’ (১৯৭৭), প্রথম রাজনৈতিক ছবি ‘জীবন থেকে নেয়া’ (১৯৭০), পাকিস্তানের সবচেয়ে ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র ‘আয়না’ ইত্যাদি ছাড়াও বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের বহু ছবির চিত্রগ্রহণ করেছেন আফজাল চৌধুরী।

হাসান/রফিক

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়