ঢাকা     শুক্রবার   ৩১ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪৩১

জনসচেতনতাই টেকসই উন্নয়নের পথকে সুগম করতে পারে: স্পিকার

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৩৫, ১৮ এপ্রিল ২০২৪  
জনসচেতনতাই টেকসই উন্নয়নের পথকে সুগম করতে পারে: স্পিকার

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বাংলাদেশ একটি কৃষিপ্রধান দেশ। জনসংখ্যার অনুপাতে জমির পরিমাণ কম হওয়া সত্ত্বেও কৃষিতে বাংলাদেশ আজ স্বয়ংসম্পূর্ণ। কৃষি ও জলবায়ু পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। জলবায়ু নিরপেক্ষ টেকসই কৃষি ব্যবস্থা প্রচলনে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) নির্বাচনি এলাকা ২৪ রংপুর-৬ এর অন্তর্গত পীরগঞ্জ উপজেলা অডিটরিয়ামে উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত ‘কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে খরিপ-১/২০২৪-২৫ মৌসুমে উফশি আউশ ধানের আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ’ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। 

অনুষ্ঠানে পীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ এস এম তাজিমুল ইসলাম শামীমের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সাদেকুজ্জামান সরকার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মোবাশ্বের হাসান এবং রংপুর জেলার পুলিশ সুপার মো. ফেরদৌস আলী চৌধুরী।

স্পিকার বলেন, ১৯৯৬ সাল থেকেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ১০ টাকায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট চালু করেছে। তিনি বলেন, কৃষকদের অর্থনীতিতে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ও অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়নে বর্তমান সরকার নিরলস চেষ্টা করে যাচ্ছে। কৃষিতে প্রযুক্তির ব্যবহারের ফলে উৎপাদন বৃদ্ধিসহ কৃষিপণ্য বিপণন ও বাজারজাতকরণে যুগান্তকারী সাফল্য এসেছে। আধুনিক কৃষিতে পোকামাকড় নিধনসহ বিষমুক্ত বিভিন্ন সবজি ও ফল উৎপাদনে প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে।

তিনি বলেন, কৃষি পণ্যের সঠিকভাবে সংরক্ষণ ও যথাযথ মূল্য নিশ্চিত করার জন্য পর্যাপ্ত হিমাগার নির্মাণসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। আবহাওয়া ও জলবায়ু উপযোগী ফসলের জাত উদ্ভাবনের মাধ্যমে কৃষিতে জলবায়ুর বিরূপ প্রভাব মোকাবিলা করা সম্ভব। এজন্য গবেষক থেকে তৃণমূল পর্যায়ে সচেতনতা তৈরি করতে হবে। 

তিনি আরও বলেন, জনসচেতনতাই টেকসই উন্নয়নের পথকে সুগম করতে পারে। স্পিকার এসময় বৈশ্বিক তাপমাত্রা কমাতে নদী দূষণ প্রতিরোধ ও পরিকল্পিত বনায়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

এ সময় পীরগঞ্জ উপজেলার ৮ নম্বর রায়পুর ইউনিয়ন, পীরগঞ্জ পৌরসভা ও ৯ নম্বর পীরগঞ্জ ইউনিয়নের মোট ৩৪৫০ জন প্রান্তিক কৃষকের প্রতিজনকে ৫ কেজি ব্রি ধান-৯৮ সহ অন্যান্য আউশ ধানের বীজ, ১০ কেজি মিউরেট অব পটাশ এবং ১০ কেজি ডায়ামোনিয়াম ফসফেট সার বিনামূল্যে প্রদান করা হয়।

এ অনুষ্ঠানে পীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মন্ডল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইকবাল হাসান, পীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন রাজা, রংপুর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রনি, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা, বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তি ও বিভিন্ন ইউনিয়নের উপকারভোগী প্রান্তিক কৃষক উপস্থিত ছিলেন।

আসাদ/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়