RisingBD Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২১ জানুয়ারি ২০২১ ||  মাঘ ৭ ১৪২৭ ||  ০৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

শক্তিশালী ঢাকার সামনে আন্ডারডগ রাজশাহী

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:১৮, ২৪ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১০:২২, ২৪ নভেম্বর ২০২০
শক্তিশালী ঢাকার সামনে আন্ডারডগ রাজশাহী

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ স্পন্সরড বাই ওয়ালটন টুর্নামেন্টের পর্দা উঠছে আজ (মঙ্গলবার)। পাঁচ দলের এই টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বেক্সিমকো ঢাকা-মিনিস্টার রাজশাহী। শক্তির বিচারে বলা চলে শক্তিশালী ঢাকার সামনে মুখোমুখি হবে আন্ডারডগ রাজশাহী।

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে নাজমুল একাদশে একসঙ্গে খেলা নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুশফিকুর রহিম আজ ভিন্ন দুই দলের অধিনায়ক। এরমধ্যে ঢাকার অধিনায়ক মুশফিকুর আজ অপেক্ষাকৃত নির্ভার থাকবে। কারণ শান্তর রাজশাহীর চেয়েও কাগজে কলমে শক্ত দল নিয়ে মাঠে নামছে তার দল।

প্রথমবারের মতো যেকোনো টুর্নামেন্টে ঢাকার ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলছেন মুশফিক। প্লেয়ার্স ড্রাফটে প্রথম সুযোগেই জাতীয় দলের এই নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যানকে দলে ভিড়িয়েছে ঢাকা। এরপরই অধিনায়কত্বের দায়িত্বও দিয়েছে তার কাঁধে। দলে মুশফিকের সঙ্গে আছে অভিজ্ঞ রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, আবু হায়দারের মতো ক্রিকেটার। একইসঙ্গে তরুণ তুর্কী তানজিদ তামিম, ইয়াসির রাব্বী, আকবর আলী, মেহেদী রানাদের নিয়ে দারুণ এক ভারসাম্যপূর্ণ দল বেক্সিমকো ঢাকার।

অধিনায়ক মুশফিকও প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার আগে নিজ দলকে ভারসাম্যপূর্ণ দাবি করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। তার ভাষ্যে, ‘আমাদের ভারসাম্যপূর্ণ দল। এখন মাঠে আমাদের কাজটা করতে হবে। অধিনায়ক হিসেবে আমার কাজ এই দলকে নাম্বার ওয়ান করা। সেই চ্যালেঞ্জ নেওয়ার জন্য আমি প্রস্তুত। আশা করবো ব্যক্তি ও অধিনায়ক হিসেবে প্রতিদান দিতে পারবো।’

এদিকে প্রথম ম্যাচে রাজশাহীর বিপক্ষে ফেভারিট হয়ে মাঠে নামলেও মুশফিক মনে করছেন, ভালো খেললেই কেবল টি-টোয়েন্টিতে নির্দিষ্ট দিনে জেতা সম্ভব। মুশফিক আরও যোগ করেন, ‘এই ফরম্যাটে অভিজ্ঞতা কাজে লাগলেও দুইটা বা তিনটা প্লেয়ার পারফর্ম করলেই জেতা সম্ভব। ফলে নির্দিষ্ট দিনে যারা মাঠে নিজেদের সেরা পারফরম্যান্স করতে পারবে তারাই জিতবে। যারা কম ভুল করবে তাদের সম্ভাবনা বেশি থাকবে।’

এদিকে রাজশাহী প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার আগে তাদের দুর্ভাগ্য দলের আইকন ক্রিকেটার মোহাম্মদ সাইফউদ্দীনকে না পাওয়া। অনুশীলনে ফুটবল খেলতে গিয়ে চোটে পড়ে ন্যূনতম এক সপ্তাহের জন্য ছিটকে গেছেন সাইফউদ্দীন। দলে সাইফউদ্দীন ছাড়া বড় তারকা বলতে রয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। তবে তিনিও ক্রিকেটে নেই দীর্ঘদিন। এছাড়াও অধিনায়ক শান্তর সঙ্গে এক্স ফ্যাক্টর হতে পারেন নুরুল হাসান সোহান, রনি তালুকদার, জাকির আলী, ফরহাদ রেজার মতো ক্রিকেটার। যদিও শক্তির বিচারে ঢাকার চেয়ে পিছিয়ে আছে রাজশাহী।

তবে রাজশাহী অধিনায়ক শান্ত নিজের দল নিয়ে সন্তুষ্টিই প্রকাশ করেছেন। নিজ দল নিয়ে শান্ত বলেন, ‘আমরা সবাই সবার জায়গা থেকে ভালোভাবে প্রস্তুত। অভিজ্ঞতার পাশাপাশি তরুণ অনেক ক্রিকেটারও রয়েছে। চারদিকে চিন্তা করলে কম্বিনেশন ভালো। সাইফউদ্দীনকে না পাওয়া দুর্ভাগ্য তবে যেই দলই হবে, সেটি নিয়ে আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে।’

এদিকে রাজশাহীর সামনে প্রধান লক্ষ্য থাকবে ঢাকার অধিনায়ক মুশফিককে আউট করা। প্রেসিডেন্টস কাপে একসঙ্গে খেলার সুবাদে শান্ত জানিয়েছেন সেটা খুব সম্ভব। তিনি আরও যোগ করেন, ‘মুশফিক ভাইয়ের সঙ্গে বেশ কয়েকটা ইনিংসে ব্যাটিং করার সুযোগ হয়েছিল। অনেক কিছুই জানা আছে। আশা করছি যে, যদি আমাদের বোলাররা তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী বল করতে পারে, তাহলে অবশ্যই মুশফিক ভাইকে তাড়াতাড়ি আউট করার মতো সক্ষমতা রাখে।’

দীর্ঘ ২৫১ দিন পর ঢাকা ও রাজশাহীর মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে আবার ফিরছে ঘরোয়া ক্রিকেট। প্রথম ম্যাচে দুই দল দর্শকদের কতটা বিনোদিত করে ক্রিকেট ফেরানো রাঙাতে পারে, সেটিই এখন দেখার।

ঢাকা/কামরুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়