Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৪ জুন ২০২১ ||  আষাঢ় ১০ ১৪২৮ ||  ১২ জিলক্বদ ১৪৪২

কোহলিদের বিপর্যয়ে শোয়েবের ‘খোঁচা’

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৪৯, ১৯ ডিসেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:০৩, ১৯ ডিসেম্বর ২০২০
কোহলিদের বিপর্যয়ে শোয়েবের ‘খোঁচা’

ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে টেস্ট ক্রিকেটে নিজেদের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় লজ্জার দিন পার করল ভারত। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে গোলাপি টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ভারত অলআউট হয়ে যায় ৩৬ রানে। পরাজয় বরণ করে আট উইকেটে।

কোহলিদের এমন দিনে কী প্রতিদ্বন্দ্বীরা বসে থাকতে পারেন? না পারেননি পাকিস্তানের সাবেক গতি তারকা শোয়েব আখতার। কোহলিদের রান নিয়ে এক টুইটে দিলেন খোঁচা।

তিনি লেখেন, ‘আমি সকালে ঘুম থেকে উঠি এবং টিভি চালু করি। গতকাল রাতে ম্যাচ দেখিনি। আমি বোর্ডে দেখি ভারতের রান ৩৬৯। তাই আবার চোখ মুছে সতর্কতার সঙ্গে দেখি। আমি দেখি এটা ৩৬ ও তার পাশে একটা স্ল্যাশের পর ৯ এবং দেখি একজন রিটায়ার্ট হার্ট হার্ট। লজ্জার পরাজয়, লজ্জার ব্যাটিং।’

অস্ট্রেলিয়ার পেস বোলারদের তোপে দিশেহারা বিরাট কোহলি, আজিঙ্কা রাঙানেরা। অ্যাডিলেডে ব্যাটিংটাই যেন ভুলে গেছে সফরকারীরা। তাইতো ১৯ রান তুলতেই কোহলিরা হারায় ৬ উইকেট। এর আগে এতো অল্পরানে কখনো ৬ ব্যাটসম্যানকে হারায়নি ভারত। শেষমেশ ভারতের ইনিংস শেষ হলো ৩৬ রানে।

সেটাও তাদের টেস্ট ক্রিকেটে সর্বনিম্ন দলীয় রান। এর আগে ১৯৭৪ সালে লর্ডসে ৪২ রানে অলআউট হয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। সব মিলিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে এটি পঞ্চম সর্বনিম্ন দলীয় রান। ১৯৫৫ সালে নিউ জিল্যান্ডকে ২৬ রানে অলআউট করেছিল ইংল্যান্ড। যা টেস্ট ক্রিকেটের সর্বনিম্ন দলীয় রান।

প্রথম ইনিংসে ২৪৪ রান করা ভারত দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৬ রানের বেশি করতে পারেনি। শেষ জুটি হিসেবে মোহাম্মদ শামি ও উমেশ যাদব ক্রিজে ছিলেন। কামিন্সের শর্ট বলে হাতে আঘাত পেয়ে রিটায়ার্ট হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন শামি। ভারতের ইনিংস শেষ হয় সেখানেই।

অফিসিয়াল রেকর্ডবুকে এ রানই সর্বনিম্ন রান হিসেবে বিবেচিত হবে। ১৯৩২ সালে টেস্ট ক্রিকেটে পথ চলা শুরু ভারতের। ৫৪৩ টেস্ট ম্যাচ খেলা ভারত এর আগে এমন লজ্জায় পড়েনি।

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়