ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৯ ||  ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

সাকিবের ভুলও হতে পারে, সমাধানের চেষ্টা করছি: জালাল ইউনুস 

ক্রীড়া প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৪৫, ৮ আগস্ট ২০২২   আপডেট: ১৬:০৬, ৮ আগস্ট ২০২২
সাকিবের ভুলও হতে পারে, সমাধানের চেষ্টা করছি: জালাল ইউনুস 

বেটিং সংস্থা বেট উইনারের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান বেট উইনার নিউজের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করেছেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। বেটিং সংক্রান্ত যে কোনও কিছুতেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কড়া নিষেধাজ্ঞা। এমনকি দেশের আইনেও তা নিষিদ্ধ।

বিসিবি সাকিবের সঙ্গে আলোচনা করে বেট উইনার নিউজের সঙ্গে চুক্তির বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছে। অর্থাৎ সাকিবকে এই চুক্তি থেকে সরিয়ে নিয়ে আসা হবে। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি মনে করছেন এটা ভুলও হতে পারে, দ্রুত সমাধান হয়ে যাবে বলেও প্রত্যাশা করছেন। 

সোমবার (৮ আগস্ট) সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে এমন কথা বলেন জালাল, ‘আমরা এটা মানছি না বলেই তাকে জানানো হয়েছে। আমরা তাকে জানিয়েছি, সে আমাদের খেলোয়াড়, সেও বুঝবে বিষয়টা। এরকম বিতর্কিত বিষয়ে কেউ জড়িত হতে চায় না। অজান্তে হোক বা জেনেই হোক, হয়তো ভুলও হতে পারে। আমরা এটা সমাধান করার চেষ্টা করছি, আশা করি সমাধান হয়ে যাবে।’

বেট উইনার নিউজের সঙ্গে পার্টনারশিপের এ ঘোষণা  সাকিব নিজেই তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে দেন। গত মঙ্গলবার রাতে সাকিব ফেসবুকে বেট নিউজের সঙ্গে অফিসিয়াল পার্টনারশিপের ঘোষণা দিয়ে লেখেন, ‘প্রিয় ভক্তরা। বেট নিউজের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক চুক্তির বিষয়ে ঘোষণা দিতে পেরে আমি গর্বিত।’ সাকিব আরও লেখেন, 'বেট উইনার নিউজ স্পোর্টস সংবাদের একমাত্র সূত্র। তুমি যদি সবসময় ট্রেন্ডের সঙ্গে থাকতে চাও এবং খুব গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ বিশ্লেষণ ও খেলার হাইলাইটস পেতে চাও তাহলে বেট উইনার নিউজ তোমার জন্য।’

সাকিবের এই চুক্তির কারণে আটকে আছে টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব। বিসিবি চাইছে এটা সমাধান করেই নাম ঘোষণা করতে। এর আগে বোর্ড সভাপতি জানিয়েছিলেন, তাকে নোটিশ দেওয়ার কথা। এরপর থেকেই মূলত সাকিবের সঙ্গে আলোচনা করছে বিসিবি। 

জালাল বলেন, ‘একটা তো ইস্যু হয়েছে। এটা নিয়ে তার সঙ্গে আমরা যোগাযোগে আছি। তার সাথে কয়েকবার আমাদের যোগাযোগ হয়েছে। যেহেতু এটা ইস্যু, আমাদের সমাধান করা দরকার। সমস্যার সমাধানের জন্য তার সঙ্গে আলাপ করছি। দুয়েকদিনের মধ্যে আপনারা জানতে পারবেন।’ 

‘যাই হোক না কেন, আমরা অবশ্যই এ ধরনের বেটিংয়ে জিরো টলারেন্স শো করি। তার সংশ্লিষ্টতা এখানে দেখা যাচ্ছে যে, কোনও একটা কোম্পানির অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তার একটা চুক্তি হয়েছে। তাকে আমরা সেটা জানিয়েছি এবং সে জানে ব্যাপারটা। যত শিগগিরই সম্ভব আমরা সমাধানের চেষ্টা করছি।’- আরও যোগ করেন জালাল। 

ঢাকা/রিয়াদ/ফাহিম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়