ঢাকা     শুক্রবার   ২৪ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১

কষ্টার্জিত জয়ে সিরিজে সমতা ফেরালো ভারত

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০১:১৪, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩   আপডেট: ০১:১৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩
কষ্টার্জিত জয়ে সিরিজে সমতা ফেরালো ভারত

তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে হেরেছিল ভারত। তবে দ্বিতীয়টিতে কষ্টার্জিত জয় তুলে নিয়ে সমতা ফিরিয়েছে সিরিজে।

রোববার রাতে লক্ষ্ণৌতে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নামা নিউ জিল্যান্ড ৮ উইকেট হারিয়ে মাত্র ৯৯ রান সংগ্রহ করে। জবাবে ৪ উইকেট হারিয়ে শেষ ওভারের পঞ্চম বলে জয় নিশ্চিত করে ভারত।

নিউ জিল্যান্ডের গোটা ইনিংসে বাউন্ডারি ছিল মাত্র ৬টি। ছিল না কোনো ছক্কার মার। মিচেল স্যান্টনার সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৯ রান করেন। ১৪টি করে রান করেন মাইকেল ব্রেসওয়েল ও মার্ক চ্যাপম্যান। ১১টি করে রান করেন দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান ফিন অ্যালেন ও ডেভন কনওয়ে।

বল হাতে ভারতের সাতজন বোলার হাত ঘুরান। তার মধ্যে একমাত্র শিভাম মাভি কোনো উইকেট পাননি। এছাড়া বাকি সবাই উইকেট পেয়েছেন। তার মধ্যে অর্শ্বদীপ সিং ২ ওভারে ৭ রান দিয়ে নেন ২টি উইকেট।

মাত্র ১০০ রান তাড়া করতে নেমে ভারতকেও বেশ পরীক্ষার মুখে পড়তে হয়। তাদের ইনিংসেও ছিল না কোনো ছক্কার মার। চারের মার ছিল মোট ৮টি।

রান তাড়া করতে নেমে ঈশান কিষাণ-শুভমন গিলের উদ্বোনী জুটিতে আসে ১৭ রান। কিউইদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে চাপ বাড়ে ভারতের ওপর। তাতে ১৪.৩ ওভারে ৭০ রান তুলতেই তারা হারায় চার উইকেট। সেখান থেকে সূর্যকুমার যাদব ও হার্দিক পান্ডিয়া আস্থার প্রমাণ দিয়ে ম্যাচ বের করে আনেন।

অবশ্য শেষ দিকে শ্বাসরুদ্ধকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। জিততে শেষ ওভারে ভারতের প্রয়োজন ছিল ৬ রান। কিন্তু সেটাও ভীষণ কঠিন হয়ে ওঠে। শেষ পর্যন্ত শেষ ওভারের পঞ্চম বলে সূর্যকুমার যাদব চার মেরে ভারতের জয় নিশ্চিত করেন। সূর্যকুমার ১ চারে ২৬ রানে অপরাজিত থাকেন। তার সঙ্গে ১ চারে ১৫ রানে অপরাজিত থাকেন হার্দিক পান্ডিয়া।

বল হাতে মাইকেল ব্রেসওয়েল ও ইস শোধি ১টি করে উইকেট নেন। বাকি দুটি উইকেট যায় রান আউটের খাতে। ম্যাচ জিতিয়ে সিরিজে সমতা ফিরিয়ে ম্যাচসেরা হন সূর্যকুমার।

ঢাকা/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়