ঢাকা     শুক্রবার   ০১ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৮ ১৪৩০

ইন্দোনেশিয়াকে বঞ্চিত করে আর্জেন্টিনাকে খুশি করলো ফিফা

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:১৯, ৩১ মার্চ ২০২৩   আপডেট: ১১:২৭, ৩১ মার্চ ২০২৩
ইন্দোনেশিয়াকে বঞ্চিত করে আর্জেন্টিনাকে খুশি করলো ফিফা

ফিফা অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ-২০২৩ এর আয়োজক ছিল ইন্দোনেশিয়া। ৫০ দিন পর অর্থা ২০ মে থেকে মাঠে গড়ানোর কথা ছিল এই আসর। কিন্তু হঠাৎ ইন্দোনেশিয়া থেকে অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ সরিয়ে নিয়েছে ফিফা। নতুন আয়োজক হিসেবে উঠে এসেছে আর্জেন্টিনার নাম।

জানা গেছে, হঠাৎ করে ফিফা বুধবার ইন্দোনেশিয়া থেকে বিশ্বকাপ সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে বিবৃতি দেওয়ার পর পরই এই বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য আনুষ্ঠানিক আগ্রহ প্রকাশ করে আর্জেন্টিনা। একমাত্র দেশ হিসেবে তারাই এটা আয়োজনের জন্য ফিফাকে প্রস্তাব দেয়। জানা গেছে দুই-একদিনের মধ্যে আর্জেন্টিনাকে আয়োজক ঘোষণা করে বিবৃতি দিবে ফিফা ব্যুরো।

ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফানতিনো বর্তমানে দক্ষিণ আমেরিকায় আছেন কনমেবলের কংগ্রেসে অংশ নিতে। তিনি আর্জেন্টিনাকে ২০২৩ অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপের আয়োজনের দায়িত্ব দেয়ার মনন্থিরও করে ফেলেছেন। তেমন কিছুই তার বক্তব্য থেকে বোঝা গেল।

‘আমাদের সবারই আর্জেন্টিনার ফুটবল কাঠামো সম্পর্কে ধারনা আছে। নিশ্চিতভাবেই তারা এই পর্যায়ের একটি বিশ্বকাপ আয়োজন করতে সক্ষম। আরও দুই একটি দেশ আগ্রহ দেখিয়েছে। কিন্তু আগ্রহ প্রকাশ, সরকারি নিশ্চয়তা ও অন্যান্য বিস্তারিত সবকিছুর দিক দিয়ে আর্জেন্টিনাই প্রথম। আমরা দুই-তিনদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিবো।’

মূলতা ঝামেলা হয়েছে ইসরায়েল ফুটবল দল নিয়ে। ইন্দোনেশিয়ার বিখ্যাত বালি প্রদেশ ইসরায়েল অনূর্ধ্ব-২০ ফুটবল দলকে আতিথিয়েতা দিতে অনাগ্রহ দেখায়। এরপর ফিফা সভাপতি আলোচনায় বসেন ইন্দোনেশিয়ান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (পিএসএসআই) সভাপতি এরিক থোহির সঙ্গে। আলোচনা শেষেই ইন্দোনেশিয়া থেকে বিশ্বকাপ সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত বিবৃতি দিয়ে জানায় ফিফা।

ফিফার এমন সিদ্ধান্তে যারপরনাই ক্ষুব্ধ হয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল খেলোয়াড়, ফুটবল ভক্ত-সমর্থক ও ফুটবল বিশেষজ্ঞরা। তারা বলছেন ইসরায়েলের বিষয়টি আলোচনার মাধ্যমে সমাধান করা যেত। কিন্তু সেটা না করে আর্জেন্টিনাকে খুশি করতেই ইন্দোনেশিয়া থেকে অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্বকাপ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে মাত্র ৫০ দিন আগে!

কনমেবলের কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার আগে ইন্দোনেশিয়া থেকে সরিয়ে আর্জেন্টিনায় নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ফিফা। আর কংগ্রেসে যোগ দিয়ে এই ঘোষণা দিয়ে তাদের খুশি করে ফিফা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এমনই অভিযোগ তুলছেন ইন্দোনেশিয়ার ফুটবল ভক্তরা।

ঢাকা/আমিনুল

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়