ঢাকা     সোমবার   ২২ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৯ ১৪৩১

আলোচিত ‘ঘুঘুর স্টিকার’ সরাতে বাধ্য হলেন খাজা

ক্রীড়া ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৪:৫৮, ২ মার্চ ২০২৪   আপডেট: ১৫:০০, ২ মার্চ ২০২৪
আলোচিত ‘ঘুঘুর স্টিকার’ সরাতে বাধ্য হলেন খাজা

ফিলিস্তিনের প্রতি ইসরায়েলের হামলার প্রতিবাদে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিতে চেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটার উসমান খাজা। যে কাজে ব্যবহার করেছিলেন নিজের ব্যাট, প্যাড ও জুতা। বারবার বাধার সম্মুখীন হওয়া খাজা আরেকবার মুখোমুখি হলেন তিক্ত অভিজ্ঞতার। ব্যাট থেকে ঘুঘুর স্টিকার তুলে ফেলতে বাধ্য করা হলো তাকে। 

ঘুঘুকে প্রাচীনকাল থেকেই শান্তির প্রতীক হিসেবে দেখা হয়। সময়ের ক্রমে এটিকে মানবধিকারের প্রতীক হিসেবেও ব্যবহার করার প্রচলন শুরু হয়। এক্ষেত্রে আইসিসির কড়া নিয়ম, অনুমতি ছাড়া খেলোয়াড় এবং ম্যাচ অফিশিয়ালরা বার্তাসংবলিত কোনো পোশাক ও সরঞ্জাম ব্যবহার করতে পারবেন না। 

ওয়েলিংটনে নিউ জিল্যান্ড–অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার টেস্টের তৃতীয় দিনে সকালে এই ঘটনা ঘটেছে। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের মাঝপথে খাজার ব্যাটে সমস্যা দেখা দিলে নতুন ব্যাট চেয়ে পাঠান। এক সতীর্থ নতুন অনেকগুলো ব্যাট নিয়ে আসলে সেগুলোর মধ্যে থেকে একটি ব্যাট বাছাই করেন খাজা। তাতে ঘুঘুর স্টিকার থাকায় আম্পায়ারদের বাধার মুখে বাধ্য হয়ে স্টিকারটি তুলে ফেলেন।

এর আগে গত বছর ডিসেম্বরে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি বাহিনীর নৃশংসতায় প্রতিবাদে জানিয়ে পার্থে সিরিজের প্রথম টেস্টে স্লোগানসংবলিত জুতা পরে খেলতে চেয়েছিলেন খাজা। জুতায় লেখা ছিল ‘স্বাধীনতা একটি মানবাধিকার’ ও ‘সবার জীবনই গুরুত্বপূর্ণ’।

কিন্তু আইসিসি তার এই স্লোগানসংবলিত লেখা নিয়ে খেলার অনুমতি দেয়নি। এরপর অন্য পথ অবলম্বন করেন খাজা। পরে কালো বাহুবন্ধনী পরে খেলতে নামেন। এতেও আপত্তি তোলে আইসিসি। তাতেও ক্ষ্যান্ত দেননি অজি ওপেনার। এবার নিজের ব্যাটে ও জুতায় শান্তির প্রতীক পায়রার স্টিকার লাগিয়ে বক্সিং ডে টেস্ট খেলার ইচ্ছা পোষণ করেন। কিন্তু খাজাকে সেই অনুমতিও দেয়নি আইসিসি।

ঢাকা/বিজয়

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়