ঢাকা, বুধবার, ৩ মাঘ ১৪২৫, ১৬ জানুয়ারি ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে বিশ্বমানের ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-১২ ৬:০৮:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-১৩ ১১:৪৩:৫৬ এএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্সের এক বিশাল বাজার রয়েছে বাংলাদেশে। দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই বাজারের পরিধিও। তবে এই খাতটি আগে সম্পূর্ণ আমদানিনির্ভর থাকলেও এখন দেশেই বিশ্বমানের ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্সেস তৈরি করছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।

ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি সারা দেশে সাশ্রয়ী মূল্যে ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স ক্রেতাদের হাতে পৌঁছে দিচ্ছে। তাদের চাহিদার কথা চিন্তা করে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলাতেও ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স প্রদর্শন ও বিক্রি করছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে শুধু মেলা প্যাভিলিয়ন থেকে ইলেকট্রিক্যাল পণ্য কিনলেই ছাড় পাবেন ক্রেতারা।

বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের সমন্বয়ক মো. মোস্তফাজ্জামান সরকার জানান, মেলা উপলক্ষে দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ চালু করেছে ওয়ালটন। পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাবেন সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। আরো পেতে পারেন মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ওভেনসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি।

তিনি বলেন, মূলত মেলায় আমরা ব্যবসার কথা চিন্তা করে অংশগ্রহণ করিনি। ক্রেতাদের মাঝে ওয়ালটন পণ্য পরিচিত করাই হচ্ছে মেলায় অংশগ্রহণের মূল লক্ষ্য। আর আমরা সবসময়েই ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্যের মান সঠিক রেখে কম দামে প্রযুক্তি পণ্য তৈরি করে আসছি। এরই ধারাবাহিকতায় ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স তৈরি ও বাজারজাত করা হচ্ছে।

 



এ প্রসঙ্গে ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার শফিকুল আলম বলেন, ওয়ালটন মাইক্রো-টেক করপোরেশনে সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি করা হচ্ছে এসব পণ্যগুলো। প্রচুর অর্থ বিনিয়োগ করে জার্মানি, জাপান, তাইওয়ানের প্রযুক্তিগত সহায়তায় মেধাবী, দক্ষ প্রকৌশলী ও টেকনিশিয়ানরা তৈরি করছেন এসকল পণ্য। মান নিয়ন্ত্রণে জিরো টলারেন্স নীতির অনুসরণ করে ইন্টারন্যাশনাল ইলেকট্রোটেকনিক্যাল কমিশনের (আইইসি) স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ খ্যাত এসব পণ্য তৈরি হচ্ছে।

তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স পণ্যের মধ্যে ব্যাটারি, এলইডি লাইট, ফ্যান, সুইচ সকেট, স্মার্ট সুইচ, হোল্ডার, ডিবি বক্স, মডেলের বেশ কয়েকটি পণ্য রয়েছে। এলইডি লাইট মডেলের পণ্যগুলোর মধ্যে বেশ জনপ্রিয় পণ্যগুলো হলো- এলইডি বাল্ব, টিউব লাইট, ডাবল টিউব ডেকরেটিভ লাইট, ডাউন লাইট, প্যানেল লাইট, এলইডি লাইট, সিলিং ফ্যান, ওয়াল ফ্যান, রিচার্জেবল ফ্যান, টেবিল ফ্যান, রিমোট কন্ট্রোল সিলিং ফ্যান ইত্যাদি।

স্মল সাইজ ব্যাটারির মধ্যে WB6450C, WB1245, WB6450, WB440, WB6450B, WB6450C, WB670, WB1245, WB1275সহ আর তিনটি মডেল। যা ২৮০ টাকা থেকে ১ হাজার ৮০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। মিডিয়াম সাইজ ব্যাটারির মধ্যে রয়েছে- Power Master W6DZM95, W6DZM75, W6DZM95 মডেল। যার মূল্য ৪ হাজার ৫৭৫ টাকা থেকে ৫ হাজার ৮০০ টাকা।

এদিকে, সুইচ সকেটের মধ্যে রয়েছে, W1 Series, A8 Series, E4 Series, P1 Series, S3 Series, V8 Series ইত্যাদি। Accessories, DB Box সিরিজের পণ্য সামগ্রী। এর মধ্যে W1 Series পণ্যগুলো হলো- ওয়ান গ্যাং সুইচ, ২ গ্যাং সুইচ, ৩ গ্যাং সুইচ, ৪ গ্যাং সুইচ, ৫ গ্যাং সুইচ, কলিং বেল সুইচ, কমিউনিকেশন সকেট, ডিমার, সকেট, ইউএসবি সকেট, ডিপি সুইচ।

 



A8 Series এর পণ্যগুলো হল- ওয়ান গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), ২ গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), ৩ গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যঅন্ড টু ওয়ে), ৪ গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), কলিং বেল সুইচ, কমিউনিকেশন সকেট, ডিমার, সকেট, ব্লাঙ্ক প্লেট, ইউএসবি সকেট, টাইপ সকেট, ডিপি সুইচ এবং E4 Series, P1 Series আকর্শনীয় মডেলের ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য।

S3 Series ৩০টি ও V8 Series মধ্যেও রয়েছে ৩০টি মডেলের ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য। Smart Switch এর মধ্যে রয়েছে- রিমোর্ট কন্ট্রোল সুইচ। Accessories এর মধ্যে রয়েছে- ফ্যান রেগুলেটর, বাল্ব হোল্ডার, সিলিং রোজ ইত্যাদি। DB Box এর মধ্যে রয়েছে- WDB-8WTP-63A, SP-1W32C, WDB-PRIME-SP-1W32C, TP-3W63C, WDB-PRIME-TP-3W63C, WDB-3TP-9ও ইত্যাদি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জানুয়ারি ২০১৯/নাসির/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC