ঢাকা, বুধবার, ১০ বৈশাখ ১৪২৬, ২৪ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ফরিদপুর কমিউনিটি ম্যাটস কলেজের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ

মো. মনিরুল ইসলাম টিটো : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০২-১৭ ৫:৩৬:৪৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-১৭ ৫:৩৬:৪৯ পিএম

ফরিদপুর প্রতিনিধি : ফরিদপুর শহরের বেসরকারি মেডিকেল টেকনোলজি কলেজ কমিউনিটি ম্যাটস কলেজ “ফরিদপুর কমিউনিটি ম্যাটস” এর শিক্ষার্থীরা কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও যৌন হয়রানির অভিযোগে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে । রোববার দুপুরে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনের মুজিব সড়কে  মানববন্ধন করে তারা।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, তাদের মোট চার বছরের কোর্স। তিন বছর একাডেমিক ও এক বছর ইন্টার্নি। কলেজ কর্তৃপক্ষ তাদের ভর্তির আগে বিএমডিসি’র অনুমোদন রয়েছে দাবি করলেও এখন তারা বিএমডিসির সনদ দিতে পারছেন না। পরে খোঁজ নিয়ে তারা জানতে পারেন এই কলেজের বিএমডিসির কোনো অনুমোদনই নেই।

দুপুরে ফরিদপুর শহরের পশ্চিমখাবাসপুর এলাকার কমিউনিটি ম্যাটস কলেজ ক্যাম্পাস থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি মুজিব সড়ক হয়ে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে দুই শতাধীক শিক্ষার্থী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। মানববন্ধন শেষে তারা জেলা প্রশাসক, সিভিল সার্জন ও পুলিশ সুপার এর বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করে।

একাধিক নারী শিক্ষার্থী অভিযোগ করেন, ভাইবা (মৌখিক) পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেওয়া ও নম্বর কম দেয়াসহ  নানা নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে যৌন হয়রানি করা হয়। এ কারণে অনেক মেয়েই কলেজ ত্যাগ করেছেন।

কলেজের শিক্ষার্থী রিয়া বলেন, ভর্তি হওয়ার আগে তাদের বলা হয়েছিল বিএমডিসি থেকে সনদ দেওয়া হবে। এখন তা দেয়া হচ্ছে না। কলেজের প্রতিটি মেয়েই কোনো না কোনোভাবে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে ।

নাহিদ হাসান নামে এক ছাত্র জানান, ভাইবা পরীক্ষায় কোন ফি নেওয়ার কথা না থাকলেও ছাত্রদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নেওয়া হয়।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, কলেজ অধ্যক্ষকে তারা কখনোই পান না। যে কোন ধরনের অভিযোগ নিয়ে কথা বলতে চাইলে পরিচালকদের সাথে কথা বলতে হয়।

সরেজমিনে কলেজে গিয়ে দেখা যায়, চার তলা ভবনের নিচ তলায় একটি ফার্নিচারের শো’রুম। আর উপরের তিনটি তলায় একাডেমিক, প্রশাসনিক ও শির্ক্ষার্থীদের আবাসিক হোস্টেল। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ অনুযায়ী পাওয়া যায়নি কলেজ অধ্যক্ষকেও।

কলেজের উদ্যোক্তা সদস্য মহসিন আ. গাইয়ুম জানান, যৌন হয়রানির অভিযোগ ভিত্তিহীন ও অমূলক। বিএমডিসি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। আমরা স্টেট মেডিকেল বোর্ড অব ফ্যাকাল্টি থেকে সনদ দিয়ে থাকি। বিএমডিসি’র অনুমোদন একটি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। আমরা আবেদন করেছি, এই মাসেই তাদের পরিদর্শণে আসার কথা। আশা করছি বিএমডিসির অনুমোদনও পেয়ে যাবো।



রাইজিংবিডি/ফরিদপুর/১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯/টিটো/শাহেদ

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge