ঢাকা, শুক্রবার, ৮ চৈত্র ১৪২৫, ২২ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বুক ধড়ফড় যখন বিপজ্জনক (প্রথম পর্ব)

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১২ ৯:৪০:০৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-১২ ৯:৪৮:৪১ পিএম
প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : সাধারণত হার্ট পালপিটেশন বা বুক ধড়ফড় তেমন একটা দুশ্চিন্তার কারণ নয়। কিন্তু এর সঙ্গে অন্যান্য উপসর্গ বা অবস্থা থাকলে তা মারাত্মক সমস্যার সংকেত দিতে পারে। বুক ধড়ফড় মারাত্মক সমস্যার ইঙ্গিত দেয় এমন ১৬ লক্ষণ নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের আজ থাকছে প্রথম পর্ব। 

* বুক ধড়ফড় কি?
বুকের মধ্যখানে অদ্ভুত সেনসেশন বা অনুভূতি ভীতিকর হতে পারে, কিন্তু প্রায়শ হার্ট রিদম বা হৃদস্পন্দনকে বুক ধড়ফড় ভেবে ভুল হয়। ইলেক্ট্রিক্যাল ইমপালসের একটি সিরিজ আপনার হার্টের পাম্পিং বজায় রাখে, কিন্তু যখন কোনো একটি ইমপালস সঠিক সময়ে হতে পারে না তখন বুক ধড়ফড় অনুভূত হয়। বেশিরভাগ সময় এটি কিছুই না, কিন্তু এটি বিপজ্জনক কোনোকিছুর লক্ষণও হতে পারে। ইউনিভার্সিটি অব আইওয়া হেলথ কেয়ারের ইন্টারনাল মেডিসিনের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর এবং কার্ডিওলজিস্ট ডেনিস হজসন-জিঙ্গম্যান বলেন, ‘বিভিন্ন ধরনের হার্ট রিদম ডিসঅর্ডার রয়েছে। তাদের কিছু ডিসঅর্ডার হার্টবিটকে অনিয়মিত করে, যা বুক ধড়ফড় হিসেবে অনুভূত হতে পারে।’

* সতর্ক থাকার জন্য উপসর্গ
যদি এসব ইলেক্ট্রিক্যাল ইমপালস ভুলক্রমে সংঘটিত হয়, তাহলে আপনার গলায় কোনোকিছু আটকে আছে এমন অনুভূতি এবং হার্টে দ্রুত পুনরাবৃত্তিমূলক আঘাতের শব্দ হতে পারে, বলেন হজসন-জিঙ্গম্যান। তিনি যোগ করেন, ‘অন্যান্য রিদম ডিসঅর্ডারের মধ্যে অনিয়মিত অতিরিক্ত হার্টবিট এবং দ্রুত হার্টবিট অন্তর্ভুক্ত। যেহেতু এসব অতিরিক্ত হার্টবিট এতই দ্রুত হয় যে হার্ট কার্যকরভাবে রক্ত পাম্প করতে পারে না, ফলে আপনার মনে হতে পারে যে হার্টবিট মিস হয়ে যাচ্ছে।’ নর্থওয়েল হেলথের কার্ডিওলজিস্ট এবং আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের এক্সপার্ট জো লাউ বলেন, ‘বুক ধড়ফড়ের অনুভূতি অনিয়মিত হালকা বা অত্যধিক দ্রুত হার্টবিটের মতো হতে পারে।’ ডার্টমাউথ-হিচকক মেডিক্যাল সেন্টারের ইলেক্ট্রোফিজিওলজিস্ট বা হার্ট রিদমের ডাক্তার এবং আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজি’স ইলেক্ট্রোফিজিওলজি কাউন্সিলের সদস্য এমিলি জিটলার বলেন, ‘বুক ধড়ফড় হলো একটি উপসর্গ, তাই এটির অনুভূতি কেমন তা নির্ণয় করার জন্য সাধারণত কোনো উপায় নেই- কারণ, অন্যান্য উপসর্গের মতো এটির অনুভূতিও ব্যক্তিভেদে ভিন্ন হতে পারে।’ তিনি বলেন যে চিকিৎসক দ্বারা বুক ধড়ফড়ের ডায়াগনস্টিক মূল্যায়ন হওয়া উচিৎ।

* লক্ষণ: আপনার প্রায়সময় বুক ধড়ফড় হয়
ডা. লাউ বলেন, ‘প্রকৃত কারণের ওপর ভিত্তি করে কিছু রোগী কদাচিৎ উপসর্গ অনুভব করতে পারে, যেখানে অন্যদের দিনে অনেকগুলো অবিচ্ছিন্ন এপিসোড হতে পারে, কখনো কখনো প্রত্যেকটি এপিসোডের স্থায়িত্ব কয়েক মিনিট।’ যদি বুক ধড়ফড় মাঝেমাঝে হয়, তাহলে আপনার চিকিৎসকের কাছে যাওয়ার প্রয়োজন নাও হতে পারে। বুক ধড়ফড়ের কম মারাত্মক কারণ হলো স্ট্রেস বা মানসিক চাপ, অ্যানজাইটি বা দুশ্চিন্তা, ক্যাফেইন, অ্যালকোহল, অসুস্থতা ও গর্ভাবস্থা, বলেন ডা. লাউ।

* লক্ষণ: আপনার বুকব্যথা আছে
যদি আপনার বুক ধড়ফড়ের সঙ্গে বুকব্যথা হয়, তাহলে এখনই জরুরি বিভাগে যান অথবা অ্যাম্বুলেন্স ডাকুন, বলেন ডা. জিটলার। এটি একটি সতর্ককারী লক্ষণ যে আপনার হার্ট মারাত্মক সমস্যায় আছে।

* লক্ষণ: আপনার শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে
যদি শ্বাস নিতে কষ্ট হয়, তাহলে সম্ভবত আপনার চিকিৎসকের অ্যাপয়েন্টমেন্টের জন্য অপেক্ষা করা উচিৎ হবে না। কারণ এটি লক্ষণ হতে পারে যে আপনার কার্ডিয়াক ইভেন্ট (হার্ট অ্যাটাক, হার্ট অ্যারেস্ট, স্ট্রোক) হতে যাচ্ছে। যদি বুক ধড়ফড়ের সময় মনে হয় যে আপনি মারা যাচ্ছেন, তাহলে আপনার অবিলম্বে জরুরি সেবা বা জরুরি বিভাগে যাওয়ার প্রয়োজন হবে, বলেন ডা. জিটলার।

* লক্ষণ: আপনি জ্ঞান হারিয়েছেন
অধিকাংশ লোকই জানে যে, জ্ঞান হারানো ভালো কোনো লক্ষণ নয়। জ্ঞান হারানো ইঙ্গিত দেয় যে, আপনার কোনো স্বাস্থ্য সমস্যা রয়েছে। ডা. জিটলার বলেন, ‘যদি বুক ধড়ফড়ের পর আপনি অচেতন হয়ে যান, তাহলে মেডিক্যাল অ্যাটেনশনের প্রয়োজনীয়তা আরো বেশি।’ এটি কয়েকপ্রকার কার্ডিয়াক ইভেন্টের সংকেত দিতে পারে, বলেন ডা. লাউ। বুক ধড়ফড়ের সঙ্গে মাথাঘোরা এবং পা ফোলাও আপনার হার্টের কোনো মারাত্মক সমস্যা নির্দেশ করতে পারে।

* লক্ষণ: আপনার স্ট্রোকের উপসর্গ আছে
যেকোনো স্ট্রোকের উপসর্গ, যেমন- শরীরের একপাশে (মুখ, বাহু বা পা) দুর্বলতা বা অসাড়তা, মুখের একপাশ বেঁকে যাওয়া, কথা বলতে বা বুঝতে সমস্যা এবং দৃষ্টিশক্তির পরিবর্তন ভীতিকর হতে পারে, বলেন ডা. হজসন-জিঙ্গম্যান।

* লক্ষণ: আপনি কাজ করতে পারছেন না
এমনকি আপনার ভীতিকর উপসর্গ না থাকলেও যদি বুকে অদ্ভুত অনুভূতির কারণে মনে ভয় জাগে অথবা বিশ্রাম নেওয়ার প্রয়োজন হয়, তাহলে আপনি চিকিৎসা থেকে উপকার পেতে পারেন, বলেন ডা. জিটলার। বুক ধড়ফড় নিজে বিনাইন হলেও অন্যকোনো কারণে বুক ধড়ফড় হচ্ছে কিনা তা শনাক্ত করা গুরুত্বপূর্ণ, যাতে সমস্যা সমাধানের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া যায়। ডা. জিটলার বলেন, ‘বুক ধড়ফড়ের একটি খুব কমন কারণ হলো অ্যাট্রিয়াল ফাইব্রিলেশন- এ বুক ধড়ফড় হৃদপিণ্ডের ওপরের প্রকোষ্ঠ বা অলিন্দে হয় এবং এটি হৃদপিণ্ডের নিচের প্রকোষ্ঠ বা নিলয়ে অনিয়মিতভাবে চাপ দিতে থাকে; ফলে হার্ট রিদম বিশৃঙ্খল হয়।’ আপনার অ্যাট্রিয়াল ফাইব্রিলেশনের চিকিৎসা করার প্রয়োজন নেই, কিন্তু ডাক্তাররা চিকিৎসা দিয়ে থাকেন, কারণ এটি আসলেই লোকজনকে খারাপ অনুভূতি দিয়ে থাকে এবং ওষুধ বা অ্যাবলেশনের মতো পদ্ধতির সাহায্যে তারা ভালো অনুভব করতে পারে।’

* লক্ষণ: আপনার দীর্ঘসময় ধরে বুক ধড়ফড় হচ্ছে
বুক ধড়ফড় বিপজ্জনক হওয়ার আরেকটি কারণ হলো এটি হৃদপিণ্ডের মাংসপেশিকে দুর্বল করতে পারে। ডা. হজসন-জিঙ্গম্যান বলেন, ‘সপ্তাহের পর সপ্তাহ বা মাসের পর মাস হার্ট রিদম অস্বাভাবিকতা লেগে থাকলে বা এর চিকিৎসা করা না হলে হার্টের মাংসপেশি দুর্বল হয়ে যেতে পারে, যাকে কার্ডিওমায়োপ্যাথি বলে।’ তিনি যোগ করেন, ‘সুখবর হলো হার্ট রিদম ডিসঅর্ডার কারেকশন করা হলে এ ধরনের কার্ডিওমায়োপ্যাথি সম্পূর্ণরূপে রিভার্স হয়ে যায় অর্থাৎ হার্টের মাংসপেশি পূর্বের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে।’ এছাড়া অ্যাট্রিয়াল ফাইব্রিলেশনের মতো কম মারাত্মক কন্ডিশনও দীর্ঘসময় থাকলে পরিণতি ডেকে আনতে পারে। এ রিদম বিপজ্জনক না হলেও এটি শনাক্ত না হলে বা এর চিকিৎসা করা না হলে স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যায় এবং কার্ডিওমায়োপ্যাথি সৃষ্টি হতে পারে, বলেন হজসন-জিঙ্গম্যান।

* লক্ষণ: আপনার হার্টবিট আসলেই দ্রুত হচ্ছে
সাধারণত আপনি আপনার হার্টবিট লক্ষ্য করতে পারেন না- কিন্তু যদি তা লক্ষ্য করতে পারেন এবং বুঝতে পারেন যে দ্রুত হচ্ছে, তাহলে এর মানে হতে পারে যে আপনার রক্তচাপ নিম্নমাত্রায় নেমে গেছে। রক্তচাপ কমে গেলে হার্টবিট দ্রুত ও কঠিন হয়, যার ফলে হার্টে পুনরাবৃত্তিমূলক আঘাত বা অত্যধিক দ্রুত স্পন্দন অনুভব হতে পারে, বলেন হজসন-জিঙ্গম্যান। যদি এটি সাময়িক হয়, তাহলে এটির উৎপত্তি সম্ভবত কোনো শোকাবহ ঘটনা বা ভীতিকর পরিস্থিতি বা শক্তিশালী আবেগ থেকে হয়েছে। কিন্তু বুক ধড়ফড় চলমান থাকলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

(আগামী পর্বে সমাপ্য)

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ মার্চ ২০১৯/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton AC