Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     সোমবার   ১৭ মে ২০২১ ||  জ্যৈষ্ঠ ৩ ১৪২৮ ||  ০৪ শাওয়াল ১৪৪২

মসজিদের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

রংপুর সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৬:২০, ১৬ এপ্রিল ২০২১   আপডেট: ০৮:১০, ১৬ এপ্রিল ২০২১
মসজিদের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১

রংপুরের হারাগাছে মসজিদের জন্য আদায়কৃত টাকার ভাগাভাগি নিয়ে দুইপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে নাজমুল হক (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরও দুইজন। 

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) রাত ৮ টার দিকে হারাগাছ পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের সারাই হরিনটারী জুম্মাপড়া জামে মসজিদের পাশে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পরপরই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই মসজিদের কমিটি নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে রেষারেষি চলছিল।

মসজিদের উন্নয়নের লক্ষ্যে নতুন কমিটির সদস্যরা মুসল্লিসহ স্থানীয়দের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করছিলেন। এরমধ্যে চাঁদার ২০ শতাংশ টাকা আদায়কারীরা নিতেন। এই ২০ শতাংশ টাকা নেয়াকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার জোহরের নামাজের পর নতুন কমিটির সদস্য আব্দুল বারী ভেল্লুর (৫০) সঙ্গে পুরাতন কমিটির সদস্য নুর আলমের ভাই দয়ালের মাঝে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে মাগরিবের নামাজ শেষে আবারও দুইপক্ষের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। এসময় সাধারণ মুসল্লিরা তাদেরকে শান্ত করেন। 

পরে মসজিদ থেকে বাড়িতে ফেরার পথে ভেল্লুর দুই ছেলে রিপন ও জীবনসহ কয়েকজন মিলে দয়াল ও তার পক্ষের লোকজনের ওপর হামলা চালায়। এতে দুইপক্ষের সংঘর্ষে দয়ালের ভগ্নিপতি হারাগাছ পৌরসভার সৎবাজার এলাকার মৃত আব্দুল হকের ছেলে নাজমুল হকসহ (৪৫) নূর আলম ও দয়াল আহত হন। পরে নাজমুল ও দয়ালকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে মারা যান নাজমুল। এছাড়া আহত নূর আলমকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়। 

এদিকে, খবর পেয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হারাগাছ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে এবং সেখানে তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে ভেল্লু, তার স্ত্রী স্বপ্না এবং দুই ছেলে রিপন এবং জীবনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে।

হারাগাছ থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল করিম বলেন, ‘মসজিদ কমিটির দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে ঐ এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।’

আমিরুল/আমিনুল

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়