Risingbd Online Bangla News Portal

ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রহায়ণ ১৮ ১৪২৮ ||  ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

সিঙ্গার গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে, চলছে ডাম্পিং

সাভার প্রতিনিধি  || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৩:৫৮, ৫ আগস্ট ২০২১  
সিঙ্গার গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে, চলছে ডাম্পিং

ঢাকার সাভারে সিঙ্গার বাংলাদেশ কোম্পানির গুদাম ঘরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তাপ নিয়ন্ত্রণে ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে।

তবে এঘটনায় কোনো হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির কথা তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস কিংবা পুলিশ।

এদিকে, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পানির সোর্স দূরে হওয়ায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ করে দিয়ে পানি সরবরাহ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে জেলা পুলিশ। এতে ভোগান্তিতে পড়েছেন সড়কে চলাচলরত হাজারো মানুষ ও পরিবহন।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার জাহাঙ্গীর আলম আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

সিনিয়র স্টেশন অফিসার বলেন, ‘সিঙ্গার কারখানার গুদামে আগুন নিয়ন্ত্রণে সাভার ফায়ার সার্ভিসের ৫টি, ডিইপিজেডের ৩টি ও চামড়া শিল্প নগরীর ৩টিসহ মোট ১১টি ইউনিট কাজ করেছে। আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছি। তবে গুদামের ভিতরে অতিরিক্ত তাপ নিয়ন্ত্রণে ডাম্পিং চলছে। ভিতরে থাকা এসি, ফ্রিজ, টিভিসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স পণ্য পুড়ে গেছে।’

আগুন নেভাতে আসা সিঙ্গার বাংলাদেশ কারখানার শ্রমিক আজহারুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের ফ্যাক্টরি কাছে জোড়পুল এলাকায়। এখানে ফ্যাক্টরির গুদাম ঘর। সিকিউরিটি ছাড়া এখানে তেমন কেউ থাকে না। তাই কেউ হতাহতের কথা শুনিনি। তবে ফ্যাক্টরিতে তৈরি ফ্রিজ এখানে গুদাম ঘরে এনে রাখা হয়। গতকালকেও অনেক মাল ফ্যাক্টরি থেকে ট্রাকে করে এখানে রাখা হয়েছে। সকালে হঠাৎ আগুনের খবরে আমরা সবাই ছুটে আসছি। বাইরে থেকে তখন প্রচুর ধোঁয়া দেখা যাচ্ছিলো। ভেতরে ঢোকার মতো কোনো অবস্থা ছিলো না। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। স্থানীয় মানুষ, ভলানটিয়ারসহ আমরাও আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছি।’

ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহিদুল ইসলাম জানান, গুদামে আগুনের ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা কাজ করছে। পাশাপাশি জেলা ও শিল্প পুলিশের সদস্যরাও তাদের সহায়তা করে যাচ্ছেন। কিন্তু পানির সোর্স মহাসড়কের বিপরীত পাশে হওয়ায় ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক বন্ধ করে পানি দেওয়া হচ্ছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কিংবা হতাহত হয়েছে কি না তা জানা যায়নি।

সাব্বির/বুলাকী

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়