ঢাকা     মঙ্গলবার   ২৪ মে ২০২২ ||  জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৯ ||  ২২ শাওয়াল ১৪৪৩

রংপুরে করোনা সংক্রমণরোধে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

রংপুর প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৪৯, ১৭ জানুয়ারি ২০২২  
রংপুরে করোনা সংক্রমণরোধে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত

রংপুরে করোনাভাইরাসের সংক্রান্ত ফের বাড়তে শুরু করেছে। এরই মধ্যে সরকার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, উন্মুক্তস্থানে জনসমাগম না করাসহ বেশকিছু বিধিনিষেধ জারি করেছে। তবে জেলার মানুষের সেই বিধিনিষেধ মানতে দেখা যাচ্ছে না। 

গণপরিবহন, শপিংমল থেকে শুরু করে হাট-বাজার সর্বত্র চলাফেরায় স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব উপেক্ষিত থাকছে। এ সব বিধিনিষেধ পালন করার বিষয়ে প্রশাসনের তৎপরতাও চোখে পড়েনি। 

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরীর কামারপাড়ার ঢাকা কোচ স্ট্যান্ড, বাস টার্মিনাল, জাহাজ কোম্পানি মোড় ঘুরে দেখা গেছে, মাস্ক ছাড়াই মানুষ চলাফেরা করছে। আন্তঃজেলা পরিবহনে সামাজিক দূরত্ব বা স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। পরিবহনে স্বাস্থ্য সুরক্ষার সরঞ্জামাদি চোখে পড়েনি। 

রংপুর থেকে ঢাকাগামী এক যাত্রী বলেন, ‘আমরা কাজের মানুষ। সবসময় কাজ করি। তাই করোনা আমাদের ধরবে না।’ মাস্ক না পরার বিষয়ে জানতে চাইলে বাবু বলেন, ‘গাড়িতে উঠে একটা পান খাচ্ছি, তাই মাস্ক পরিনি। একটু পরে পরবো।’ 

কামারপাড়া স্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে যাওয়া পরিবহনে বাবুর মতো অনেক যাত্রীকে মাস্ক না পরে যাত্রা করতে দেখা গেছে। আবার অনেকে জানেন না, করোনা সংক্রমণরোধে সরকারের বিধিনিষেধের কথা। 

পরিবহনের চালক ও হেলপারের টিকা নেয়া এবং টিকা নেয়ার সেই সনদ সঙ্গে রাখার কথা। যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি মানাতে কর্তৃপক্ষকে স্বাস্থ্য সুরক্ষার সরঞ্জামাদি সরবারহসহ যাত্রীদের সচেতন করার বিষয়ে উল্লেখ থাকলেও অনেকে তা করছে না। যদিও কাউন্টারের অনেকে বলছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিবহন পরিচালনা করা হচ্ছে, কিন্তু বাস্তবচিত্র অনেকটা ভিন্ন।
এসআর পরিবহনের কাউন্টারে থাকা টিকেট বিক্রেতা জুয়েল রানা বলেন, ‘সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মানার যে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, তা মানতে আমরা সকলকে উদ্বুদ্ধ করছি। অনেক যাত্রী আছে, মাস্ক পরতে চায় না। তাদেরও আমরা বাধ্য করি মাস্ক পরতে।’ 

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সকাল থেকে আগের ২৪ ঘণ্টায় রংপুরে নতুন করে ৪৯ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। রংপুরে সংক্রমণের হার বাড়ছে। 

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. আবু মো. জাকিরুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন এবং করোনার ঊর্ধ্বমুখী পরিস্থিতিতে যেভাবে স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত হচ্ছে, তা উদ্বেগজনক। একইসঙ্গে শীতকালে করোনার সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

করোনা প্রতিরোধে জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। বাইরে বের হলে মাস্ক পরার ব্যাপারে জোর তাগিদ দেন তিনি। 


 

আমিরুল/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়