ঢাকা     রোববার   ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||  মাঘ ২২ ১৪২৯

নাসিরনগরের সেই ভূমি কর্মকর্তা সাময়িক বরখাস্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৬:৫১, ১৮ মার্চ ২০২২   আপডেট: ১৭:০২, ১৮ মার্চ ২০২২
নাসিরনগরের সেই ভূমি কর্মকর্তা সাময়িক বরখাস্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরের আলোচিত সেই ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আলমগীর মিয়া চৌধুরীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। ভূমি সংক্রান্ত সেবা প্রত্যাশীদের সঙ্গে অসদাচরণ ও ঘুষ লেনদেনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

রোববার (১৩ মার্চ) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক মো. শাহগীর আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জানা গেছে, উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নবাসীর পক্ষে শামীম মিয়া নামে এক যুবক ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা আলমগীর মিয়া চৌধুরীর বিরুদ্ধে সহকারী কমিশনারের (ভূমি) কাছে লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, সেবা প্রত্যাশীদের নাম প্রস্তাব, সার্ভে রিপোর্ট, নামজারি, ডিসিআর সংগ্রহ, মিস কেস ও খাজনা দাখিল থেকে শুরু করে সবকিছুতেই টাকা দিতে হয় আলমগীরকে।

অভিযোগের পরের দিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঘুষ গ্রহণ ও ঘুষ দরকষাকষির একটি ভিডিও ভাইরাল হয়।

ভিডিওর শুরুতে একজন সেবা প্রত্যাশী তহশিলদারকে বলেন, ‘জমির কাগজ নিয়ে বিভিন্ন অফিসে দৌড়াদৌড়ি করতে পারব না। আপনিই কাজগুলো করে দেন।’

তখন তহশিলদার বলেন, ‘যেহেতু দৌড়াদৌড়ি করতে পারবেন না, তাই যারা এর আগে খারিজ করেছে তাদের জিজ্ঞেস করেন প্রতি খারিজে কত টাকা দিতে হয়।’

আরেকজন সেবা প্রত্যাশীর প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘অফিসে একটি সিস্টেম আছে, সে অনুযায়ী কাউকে একশ, কাউকে পঞ্চাশ আবার কাউকে দুইশ, এমন করে প্রায় ছয়-সাত জনকে টাকা দিতে হয়।’

লিখিত অভিযোগ ও ভিডিও ভাইরালের পর ২ মার্চ (বুধবার) সহকারী কমিশনার (ভূমি) কার্যালয় থেকে ওই ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। পরে ৩ মার্চ (বৃহস্পতিবার) কারণ দর্শানোর লিখিত জবাব দেন অভিযুক্ত আলমগীর।

লিখিত জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয়। পরে ১৩ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক শাহগীর আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা আলমগীর মিয়া চৌধুরীকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, সরকারি কর্মচারী বিধি অনুযায়ী ১৩ মার্চ থেকে আলমগীর মিয়া চৌধুরীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হল। বিধি মোতাবেক বরখাস্তকালীন সময়ে তিনি খোরপোষ ভাতা পাবেন।

সাময়িক বরখাস্তের বিষয়ে অভিযুক্ত ভূমি কর্মকর্তা আলমগীর মিয়া চৌধুরী বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওটি সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, ভিডিওটি সুপার এডিডেট, যা বাস্তবতার পরিপন্থী।’

রুবেল/কেআই

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়