ঢাকা     বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৬ ১৪২৯ ||  ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

গো-খাদ্যের সংকটে বিপাকে গৃহস্থরা

জয়পুরহাট প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:০২, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২  
গো-খাদ্যের সংকটে বিপাকে গৃহস্থরা

কৃষকের মাঠ এখন ধান ও আগাম জাতের বিভিন্ন সবজিতে ভরপুর। মাঠ ভর্তি ফসল থাকায় গরু-ছাগল মাঠে ছাড়তে পারছেন না কৃষকরা। এছাড়া খাবারের দাম বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন জয়পুরহাটের পাঁচবিবির পশু পালকরা। 

পাঁচবিবি বাজারেরর রেলগেট এলাকায় জিরা ধানের খড় বিক্রি করতে দেখা যায় ফারুক, রুহুল আমিন ও শাহিন নামের কয়েকজনকে। তারা কৃষকের কাছ থেকে জিরা ধানের খড় কিনে বাজারে এনে বিক্রি করছেন। 

খড় ব্যবসায়ী ফারুক বলেন, ‘অনেক কৃষকের পাশাপাশি ইটভাটা মালিকরা ভাটার ফাঁকা জমিতে আগাম জাতের  জিরা ধানচাষ করেন। বিদেশি ঘাসের চেয়ে একটু দাম কম এবং কাঁচা হওয়ায় গাভীর মালিকরা এ খড়গুলো কিনছেন।’ 

পাঁচবিবি শহরের আব্দুল খালেক নামে এক খামারি বলেন, ‘আমার ৬টি গরু রয়েছে। গরু পালনে খড় ও কাঁচা ঘাসের প্রয়োজন হয়। তবে বর্তমানে খড়ের দাম ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ বেড়ে গেছে। এতে গরু লালন পালন করা আমাদের জন্য কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে।’ 

উপজেলার রতনপুর গ্রামের আরেক খামারি মিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ছোটবড় ৯ টা গরু আছে। কিছুদিন আগেই পালার খড় শেষ হয়েছে। স্থানীয় বাজার থেকে বেশি দামে খড়  এবং বিদেশি ঘাস  কিনে এনে এখন গরুগুলোকে খাওয়াচ্ছি। এতে খরচ বেড়ে গেছে।’

উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. নিয়াজ কাযমীর জানান, গো খাদ্যের দাম কিছুটা বেড়েছে। তবে আশা করছি ধান কাটা শেষ হলে পশু খাদ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে।

শামীম কাদির/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়