ঢাকা     সোমবার   ২৮ নভেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৯ ||  ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪১৪

হাতিয়ায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, ২ ডাকাত নিহত 

নোয়াখালী প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৯:১৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৯:২২, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
হাতিয়ায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ, ২ ডাকাত নিহত 

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়া থেকে অস্ত্রসহ ৫ ডাকাতকে আটক করেছে কোস্টগার্ড। একইসঙ্গে দুই ডাকাত মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। কোস্টগার্ড ঘটনাস্থল থেকে ৩টি একনলা বন্দুক, দুই রাউন্ড তাজা গুলি ও কিছু দেশীয় উদ্ধার করেছে।

নিহত ডাকাতরা হলেন— উপজেলার মেঘনা নদী সংলগ্ন চর ঘাসিয়ার বাসিন্দা এবং ডাকাত সর্দার ফখরুল গ্রুপের সদস্য কবির ও সাহারাজ।

আটককৃত ডাকাতরা হলেন— লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলায় বাসিন্দা জিন্টু (৩৬), হারুন (৩৭),  লিটন (৩৫), মোশারফ (৩৬) ও আজিম বেপারী (২৭)।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ৫ ডাকাত আটকের বিষয়টি প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নিশ্চিত করেন কোস্ট গার্ড সদর দপ্তরের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার খন্দকার মুনিফ তকি। তবে দুই ডাকাত নিহতের বিষয়ে ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে কিছু বলা হয়নি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, নোয়াখালী জেলার মেঘনা নদী সংলগ্ন হাতিয়া উপজেলার ঘাসিয়াচর অপরাধপ্রবণ অঞ্চল। ওই চরে একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে ডাকাত খোকন গ্রুপ এবং ডাকাত ফোকরা গ্রুপ বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ৩টার দিকে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এমন খবর পেয়ে কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের তিনটি অভিযানিক দল ঘাসিয়ার চরে অভিযান চালায়। ডাকাত দল কোস্টগার্ডের উপস্থিতি টের পেয়ে বিচ্ছিন্নভাবে নৌকা যোগে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। ওই সময় কোস্টগার্ড তাদের ধাওয়া করে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার মেঘনা নদীর চর আবদুল্লাহ থেকে ৩টি একনলা বন্দুক, দুই রাউন্ড তাজাগুলি, ৬টি রামদা ও ৫টি বল্লমসহ ডাকাত খোকন বাহিনীর ৫ সদস্যকে আটক করে। পরে জব্দকৃত অস্ত্রসহ ডাকাতদের হাতিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়। তবে বিজ্ঞপ্তিতে দুই ডাকাত নিহতের বিষয়ে কিছু উল্লেখ করা হয়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আগে চরের নিয়ন্ত্রণ ছিল ডাকাত খোকনের হাতে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে যাওয়ার পর চর এলাকার নতুন করে নিয়ন্ত্রণ নেয় তার ভাই ফখরুল। কয়েক দিন আগে খোকন জামিনে এসে আবার চরের নিয়ন্ত্রণ পেতে মরিয়া হয়ে ওঠে। কিন্তু তার ভাইয়ের সদস্যদের কারণে পেরে উঠতে পারেননি। বুধবার রাত ৩টার দিকে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ডাকাত ফখরুল ও খোকন বাহিনীর মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ হয়। এ সময় ফখরুল বাহিনীর দুই জন নিহত হয়।

এ বিষয়ে হাতিয়া কোস্টগার্ডের মিডিয়া কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট সাফিউল কিঞ্জল বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে ৫ ডাকাতকে আটক করা হয়। চলে আসার পর স্থানীয় সূত্র বলছে, ওই ঘটনায় দুই ডাকাত নিহত হয়েছে। তবে আমরা ঘটনাস্থলে থাকাকালীন দুই ডাকাত নিহত হওয়ার আলামত দেখতে পাইনি।’ 

তিনি আরও বলেন, ‘স্থানীয় সূত্রে জানতে পারি সংঘর্ষে দুই জন নিহত হয়েছে।’ 
 

সুজন/বকুল 

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়