ঢাকা     শনিবার   ২০ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৫ ১৪৩১

মুন্সীগঞ্জে এমপি-মেয়র সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:১৪, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩  
মুন্সীগঞ্জে এমপি-মেয়র সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ

মুন্সীগঞ্জে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে পৌর মেয়র মোহাম্মদ ফয়সাল বিপ্লব ও স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাসের সমর্থকদের মধ্যে সংর্ষ হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে শহরের হাটলক্ষীগঞ্জ এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

আহতরা হলেন- আব্দুল মালেক (৫০), মো. জামাল (৩৫), ফয়সাল সোহাগ (৩৮), রাসেল (২৬),সাদ্দাম (৩০), আফসার হোসেন (৫০), সুমন (৩৫), আবুল কালাম, সালাউদ্দিন এবং পৌর কাউন্সিলর মকবুল হোসেনের ভাই মনির হোসেন (৪৮)।

পুলিশ স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে শহরের প্রধান সড়কে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন পৌর মেয়র। অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গজারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনসুর আহমেদ জিন্নাহর নেতৃত্বে বিকেলে ১০-১৫টি ট্রলারে করে আসেন নেতাকর্মীরা। ট্রলার থেকে নেমে পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মকবুল হোসেনের এলাকা দিয়ে মিছিল করে অনুষ্ঠানস্থলের দিকে যাওয়ার সময় কাউন্সিলর মকবুল হোসেনের ভাই মনির হোসেন লোকজন নিয়ে মিছিলে বাঁধা দেন। সে সময় দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি এবং পরে সংঘর্ষ হয়। এতে মনির হোসেনসহ ৮-১০ জন আহত হন।

মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক এস এম ফেরদৌস বলেন, ৭ জন আহত অবস্থায় মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

পৌর মেয়র হাজী মোহাম্মদ ফয়সাল বিপ্লব বলেন, প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে অনুষ্ঠান করেছি। সেই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসা নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করেছেন সংসদ সদস্য মৃণালের লোকজন। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই। 

মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস বলেন, তিনি একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গজারিয়ায় ছিলেন। হামলা ও মারামারির বিষয়টি তিনি জানেন না। তবে ঘটনার পেছনে কারা আছেন সেটি খুঁজে বের করার অনুরোধ করেন তিনি।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, পৌর মেয়রের সমাবেশকে কেন্দ্র করে গজারিয়া উপজেলা থেকে ট্রলারে করে আ.লীগের নেতাকর্মীরা আসছিলেন। তারা হাটলক্ষীগঞ্জ ঘাটে এসে নামতে চাইলে, স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর মকবুল হোসেনের লোকজন তাদের বাধা দেয়। এতে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা ও হাতাহাতি শুরু হয়। এসময় কাউন্সিলরের এক ভাই এবং গজারি থেকে আসা ৪-৫ আহত হওয়ার খবর শুনেছি। ঘটনার পর হাটলক্ষীগঞ্জ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন অভিযোগ হয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রতন/ মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়