ঢাকা     বুধবার   ২৪ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ১১ ১৪৩১

বগুড়ায় আদালতে হাজিরা দিলেন অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল

বগুড়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৮:৩২, ৪ জানুয়ারি ২০২৪   আপডেট: ১৮:৩২, ৪ জানুয়ারি ২০২৪
বগুড়ায় আদালতে হাজিরা দিলেন অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল

অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল হক মিলন

সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে স্ত্রীর নির্বাচনি প্রচারণা করার অভিযোগে বগুড়া আদালতে হাজিরা দিয়েছেন সদ্য সাময়িক বরখাস্তকৃত বরিশাল মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল হক মিলন।

বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টায় তিনি বগুড়া-১ আসনের নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান এবং যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ শাহনাজ পারভীন’র আদালতে হাজির হয়ে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের লিখিত ব্যাখ্যা দেন।

এর আগে বুধবার (৩ জানুয়ারি) সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহাজাদী আলম লিপির পক্ষে প্রচারণা চালানোর অভিযোগে পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল হক মিলনকে তলব করে নির্বাচনি অনুসন্ধান কমিটি।

নোটিশে তাকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টার মধ্যে স্বশরীরে হাজির হয়ে আদালতে লিখিত ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়। এছাড়া এ ঘটনায় হামিদুল আলমকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাকে পুলিশ অধিদপ্তরে সংযুক্ত করার বিষয়ে অনাপত্তি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
বুধবার (৩ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশনের উপসচিব মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত চিঠিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবকে এ বিষয়ে জানানো হয়।

আরও পড়ুন: স্ত্রীর পক্ষে প্রচারণায় অতিরিক্তি ডিআইজি, আদালতে তলব

এদিকে আদালতে হাজিরার পর পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল হক মিলনের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম মন্টু বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিলো নির্বাচনি কাজে তিনি তার সরকারি গাড়ি ব্যবহার করেছেন এবং পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে সরকারি গাড়ি ব্যবহার করে তার স্ত্রীর পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে প্রভাবিত করেছেন।

তিনি তার লিখিত ব্যাখ্যায় বলেছেন, অভিযোগটি একেবারেই মিথ্যা। তিনি একটা দিনের জন্যও সরকারি গাড়ি ব্যবহার করেননি। তিনি এলাকাতে অনেক আগে গিয়েছেন। নির্বাচনি তফসিল ঘোষণার পর একদিনও যাননি এবং নির্বাচনি প্রচারণায় অংশগ্রহণ করেননি। কোনো প্রভাব বিস্তার করেননি। যে দুটো অভিযোগ ছিলো দুটোই মিথ্যা। এর স্বপক্ষে কেউ কোনো প্রমাণাদি উপস্থাপন করতে পারবে না বলে উনার বিশ্বাস।

অতিরিক্ত ডিআইজি হামিদুল হক মিলনকে সাংবাদিকদের প্রশ্নে জবাবে বলেন, আামি তফসিল ঘোষণা হওয়ার পর কখনও নির্বাচনি এলাকায় যাইনি এবং কাউকে তার পক্ষে বলিনি। প্রচারণাও চালাইনি। আমার কর্মস্থলে খোঁজ নিলেই জানতে পারবেন আমার সরকারি গাড়ি ওখানে আছে না এখানে।

তার বরখাস্তের বিষয়ে জানতে চাইলে বিষয়টি তিনি জানেন না বলে জানান।

এনাম/ফয়সাল

ঘটনাপ্রবাহ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়