ঢাকা     শনিবার   ১৫ জুন ২০২৪ ||  আষাঢ় ১ ১৪৩১

৩০ ঘণ্টা পার হলেও খোঁজ মেলেনি নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:৪২, ২৯ মে ২০২৪   আপডেট: ২০:৫৪, ২৯ মে ২০২৪
৩০ ঘণ্টা পার হলেও খোঁজ মেলেনি নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর

প্রীতি খন্দকার

ত্রিশ ঘণ্টা অতিবাহিত হলেও উদ্ধার হননি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রীতি খন্দকার। প্রতিপক্ষরা তাকে গুম করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এঘটনায় ওই প্রার্থীর স্বামী মাসুদ মিয়া খন্দকার বিজয়নগর থানায় সাধারণ ডায়রি (জিডি) করেছেন। পাশাপাশি তিনি নির্বাচন কমিশনের হস্তক্ষেপ কামনা করে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর লিখিত আবেদন জমা দিয়েছেন।

বুধবার (২৯ মে) মাসুদ মিয়া সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও বিজয়নগর ইউএনও’র কাছে লিখিত আবেদন জমা দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নিখোঁজ

অভিযোগে মাসুদ মিয়া উল্লেখ করেছেন, আমি মাসুদ মিয়া (৪৬), পিতা: আঃ হামিদ, মাতা- রোকেয়া বেগম, সাং- খাটিংগা, ইউপি- পাহাড়পুর, থানা- বিজয়নগর, জেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্বাক্ষরিত স্ত্রী প্রীতি খন্দকার (৩৫), পিতা-মৃত তাজুল ইসলাম, মাতা- শাহানা আক্তার, সাং- খাটিংগা, ইউপি- পাহাড়পুর, থানা- বিজয়নগর, জেলা- ব্রাহ্মণবাড়িয়া আগামী ৫ই জুন ২০২৪ তারিখের, বিজয়নগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে (পদ্ম ফুল) মার্কা নিয়া এলাকায় নির্বাচনি প্রচারণা শুরু করেন। প্রীতি খন্দকার মঙ্গলবার দুপুর ২টার সময় বিজয়নগর থানাধীন হরষপুর ইউনিয়নের দেওয়ান বাজার এলাকায় নির্বাচনি প্রচারণা করিতে গেলে উক্ত স্থান হইতে নিখোঁজ হইয়া যায়। প্রীতি খন্দকারকে সম্ভাব্য সকল স্থানে খোঁজাখুঁজি করিয়াও তাহার কোনো সন্ধান পাওয়া যায় নাই। উক্ত বিষয়ে মাসুদ মিয়া বাদী হইয়া বিজয়নগর থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করি। যাহার জিডি নং- ১৩৪৩। আমার মনে হয়, প্রীতি খন্দকারের জনপ্রিয়তা দেখিয়া ঈর্ষান্বিত হয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন গুম করিয়াছে। আমি এ বিষয়ে জেলা রিটার্নিং ব্রাহ্মণবাড়িয়া এর মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনারের হস্তক্ষেপ কামনা করি।

আরও পড়ুন: সার্ভার ত্রুটিতে মনোনয়নপত্র জমা দিতে না পারার অভিযোগ প্রীতির

বিজয়নগর উপজেলা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও ইউএনও সৈয়দ মাহাবুবুল হক রাত ৮টায় রাইজিংবিডিকে বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি রহস্যজনক মনে হচ্ছে। থানা পুলিশকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তারা কাজ করছেন। 

বিজয়নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুল ইসলাম বলেন, নিখোঁজ প্রার্থীর সন্ধানে অভিযান অব্যাহত আছে। 

মাইনুদ্দীন/মাসুদ

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়