ঢাকা     সোমবার   ১৫ জুলাই ২০২৪ ||  আষাঢ় ৩১ ১৪৩১

ঈদের জামাতের জন্য প্রস্তুত শোলাকিয়া

রুমন চক্রবর্তী, কিশোরগঞ্জ || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৭:০৩, ১৫ জুন ২০২৪   আপডেট: ১৭:১৬, ১৫ জুন ২০২৪
ঈদের জামাতের জন্য প্রস্তুত শোলাকিয়া

কিশোরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী শোলাকিয়ায় এবার ঈদুল আজহার ১৯৭তম জামাত অনুষ্ঠিত হবে। নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি।

শোলাকিয়ায় সকাল ৯টায় শুরু হবে ঈদের জামাত। এতে ইমামতি করবেন শহরের বড়বাজার জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা হাফেজ মো. শোয়াইব বিন আব্দুর রউফ।

শনিবার (১৫ জুন) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, মাঠে দাগ কাটা, বালু ফেলা, দেয়ালে রং করাসহ শোলাকিয়া ময়দানকে জামাতের উপযোগী করার কাজ প্রায় শেষের দিকে রয়েছে। সংস্কার করা হয়েছে ওজুখানা এবং টয়লেট। চলছে শহরের শোভাবর্ধনের কাজও। তবে গত দুই দিন ধরে কিশোরগঞ্জে থেমে থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টির পানি যেন জমে না যায়, সেজন্য মাঠে ফেলা হচ্ছে বালু। ঠিকঠাক করা হচ্ছে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা।

ঈদগাহ পরিচালনা কমিটি জানিয়েছে, দূর-দূরান্তের মুসুল্লিদের যাতায়াতের জন্য ‘শোলাকিয়া স্পেশাল’ নামে দুটি বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে রেল কর্তৃপক্ষ। প্রস্তুত রাখা হয়েছে বহুসংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক ও কয়েকটি মেডিকেল টিম।

জেলা পুলিশ জানিয়েছে, ২০১৬ সালে জঙ্গি হামলার পর থেকে শোলাকিয়ার ঈদের জামাতে নিরাপত্তার দিকটি সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়ে থাকে। যেন লোকজনের মধ্যে নিরাপত্তা নিয়ে কোনো অস্বস্তি না থাকে।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ রাসেল শেখ বলেন, নিরাপত্তার দিক দিয়ে কোনো ঝুঁকি না থাকলেও নিরাপত্তা ব্যবস্থাকেই শোলাকিয়ায় প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে। মাঠে থাকবে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এছাড়া, মাঠ ও আশপাশের কয়েক কিলোমিটার এলাকা নিরাপত্তা চাদরে ঢেকে ফেলা হবে।

তিনি বলেন, আমাদের লক্ষ্য শান্তিপূর্ণ ঈদ জামাত। সেজন্য যা যা করা দরকার সবই করা হচ্ছে। এ সময় সবার সহযোগিতা কামনা করে পুলিশ সুপার বলেন, মুসল্লিরা কেবল জায়নামাজ নিয়ে মাঠে প্রবেশ করবেন।

মাঠের সার্বিক ব্যবস্থাপনা নিয়ে শোলাকিয়া ঈদগাহ কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ বলেন, মাঠে দাগ কাটা, দেয়ালে রং করাসহ সংস্কার কাজ শেষ হয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আশা করছি উৎসবমুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা গেছে, ঈদের দিন শোলাকিয়ায় ঈদ জামাতের আসা মুসল্লিদের জন্য দুটি বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে। সকাল ৬টায় ভৈরব থেকে ছেড়ে আসা ট্রেনটি কিশোরগঞ্জ পৌঁছাবে সকাল ৮টায়। পরে এই ট্রেনটি দুপুর ১২টায় কিশোরগঞ্জ থেকে ভৈরবের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে। এছাড়া, আরেকটি বিশেষ ট্রেন ময়মনসিংহ থেকে সকাল পৌনে ৬টায় ছেড়ে এসে সকাল সাড়ে ৮টায় কিশোরগঞ্জ পৌঁছবে। পরে এটি আবার ময়মনসিংহের উদ্দেশ্যে কিশোরগঞ্জ ত্যাগ করবে দুপুর ১২টায়।

জনশ্রুতি রয়েছে, ১৮২৮ সালে এই মাঠে ঈদের জামাতে প্রায় সোয়া লাখ মুসল্লি একসঙ্গে নামাজ আদায় করেছিলেন। সেই থেকে এ মাঠের নাম হয় ‘সোয়া লাখিয়া’ যা এখন শোলাকিয়া নামে পরিচিত।

কেআই

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়