ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ৩০ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪৩১

কুবি সাংবাদিক সমিতির অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় লিখিত অভিযোগ

কুবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:২৯, ৪ জুন ২০২৩  
কুবি সাংবাদিক সমিতির অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় লিখিত অভিযোগ

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) কর্মরত সাংবাদিকদের সংগঠন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (কুবিসাস) কক্ষে পূর্ব দিকের দুটি জানালার গ্লাস ভাঙার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছে সংগঠনটি। 

রোববার (৪ জুন) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকী। 

লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, ‘২০১৩ সাল থেকে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি সত্য ও ন্যায়ের পথে অবিচল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা করে আসছে। পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে বিভিন্ন সময় সমিতির সদস্যরা হুমকির শিকার হয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় ক্যাফেটেরিয়ার ২য় তলায় ১৪ নম্বর রুমে অবস্থিত সাংবাদিক সমিতির অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে। আমরা ঘটনাটি আজ সকাল ১১টার দিকে জানতে পারি। অফিস ভাঙচুরের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে যেন দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হয়।’

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ার দ্বিতীয় তলায় সাংবাদিক সমিতির কার্যক্রম চালানো কক্ষের পূর্ব পাশের দুটি জানালার কাচ ভেঙে গেছে। সাংবাদিক সমিতির সদস্যরা বিষয়টি দেখতে পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অবগত করলে প্রক্টরিয়াল বডি এসে পরিদর্শন করেন কক্ষটি।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির সভাপতি  মুহা. মহিউদ্দিন মাহি বলেন, ‘আমি এই বিষয়টা জানতে পারি কিছুক্ষণ আগে। কে বা কারা করেছে এই বিষয়ে আমি জানি না। আমরা প্রশাসনকে নিয়ে রুমে ঢুকেছিলাম ঢুকে শুধু জানালার কাঁচ ভাঙা দেখলাম। আরো কিছু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে কি না এই ব্যাপারে আমি নিশ্চিত না। এই ব্যাপারে আমরা প্রক্টর বরাবর অভিযোগ দিয়েছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাজ্জাদ বাসার বলেন, ‘সাংবাদিক সমিতির অফিসের জানালা যে বা যারা ভেঙেছে তাদের কঠোর শাস্তি হওয়া উচিত। এ ঘটনা কোনোভাবেই প্রত্যাশিত নয়। আমরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রেস ক্লাব এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, এটিকে আমরা সাংবাদিক সমিতির অফিস হিসেবে দেখছি না। এটি সকলের সম্পদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পদ, রাষ্ট্রীয় সম্পদ। যেহেতু রাষ্ট্রীয় সম্পদ ক্ষতিসাধন হয়েছে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন আইন অনুযায়ী কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করব।

এমদাদুল হক/ফিরোজ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়