ঢাকা     সোমবার   ০৪ মার্চ ২০২৪ ||  ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের সদস্য সংগ্রহের শেষদিন আজ

রাবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৪৩, ২৯ নভেম্বর ২০২৩   আপডেট: ১১:৫৭, ২৯ নভেম্বর ২০২৩
নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের সদস্য সংগ্রহের শেষদিন আজ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের পথচলা এক দশকেরও বেশি সময় পার করেছে। সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়নের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করা এ সংগঠনটি গত রোববার (২৬ নভেম্বর) থেকে নতুন সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু করে।

আজ বুধবার (২৯ নভেম্বর) তাদের এ কার্যক্রমের শেষ দিন। বুথ থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত আগ্রহীরা সদস্যের আবেদন ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন।

এর আগে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. এমএ ওয়াজেদ মিয়া একাডেমিক ভবনের সামনে সদস্য সংগ্রহের লক্ষ্যে বুথ বসানো হয়। সেখান থেকে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সংগঠনটির সদস্য সংগ্রহের আবেদন ফরম বিতরণ করা হয়।

বুথ থেকে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের সব বর্ষের শিক্ষার্থীরা এ সংগঠনের সদস্য হতে পারবেন। আগ্রহীরা ফ্রিতে সদস্য সংগ্রহের আবেদন ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন। সংগঠনটির সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহীরা সদস্য ফরম পূরণ করে জমা দেওয়ার পর সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হবে। সাক্ষৎকার শেষে শিক্ষার্থীরা সংগঠনটির সদস্য হতে পারবেন।

জানতে চাইলে নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি অলিউল ইসলাম বলেন, ‘আমরা যেহেতু একটা অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। সে দিক থেকে আমাদের সংগঠনের কার্যক্রম সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য অনেক স্বেচ্ছাসেবীর প্রয়োজন হয়। আমাদের একটা স্কুল আছে, সেখানে ক্লাস নেওয়া থেকে শুরু করে বাচ্চাদের যাবতীয় দায়িত্বসহ অনেক সমাজসেবামূলক কাজ আছে, যেগুলো সেচ্ছাসেবীদের করতে হয়।  সেজন্যই আমরা সাধারণত প্রত্যেক বছর ভলেন্টিয়ার রিক্রুটমেন্ট করে থাকি।’

তিনি বলেন, ‘গত ২৬ নভেম্বর থেকে এ পর্যন্ত ৫০ জন ফরম পূরণ করেছে। আরও কয়েকজন ফরম বাসায় নিয়ে গেছেন। হয়তো আজও কয়েকজন সংগ্রহ করবেন। তবে ৩০ নভেম্বরের পরও যেকোনো শিক্ষার্থী এর সদস্য হতে পারবেন।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১২ ডিসেম্বর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক বিকাশসহ সুনির্দিষ্ট কিছু লক্ষ্য নিয়ে সংগঠনটির যাত্রা শুরু হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকে সংগঠনটি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে শিক্ষা বিস্তারসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।

/বিজয়/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়