ঢাকা     বৃহস্পতিবার   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৬ ১৪৩০

কুবিতে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতা

কুবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৪১, ১০ ডিসেম্বর ২০২৩  
কুবিতে শুরু হচ্ছে আন্তর্জাতিক হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতা

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) চতুর্থবারের মতো শুরু হতে যাচ্ছে শিক্ষার্থীদের নোবেল পুরস্কার খ্যাত আন্তর্জাতিক হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতা। আজ রোববার (১০ ডিসেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম। চলবে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

শনিবার (৯ ডিসেম্বর) বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে হাল্ট প্রাইজ কুবির আয়োজক কমিটি বিষয়টি জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- হাল্ট প্রাইজ কুবির ক্যাম্পাস ডিরেক্টর সুমাইয়া কবির, অপারেশনস হেড ইমরুল আহসান, মার্কেটিং অ্যান্ড অপারেশন হেড মো. মুজাহিদুল ইসলাম, প্রেস অ্যান্ড মিডিয়া হেড আতিকুর রহমান প্রমুখ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, আজ রোববার (১০ ডিসেম্বর) থেকে প্রতিযোগিতার রেজিস্ট্রেশন শুরু হবে। চলবে আগামী ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত। রেজিস্ট্রেশন অনলাইন ও অফলাইন উভয়ভাবেই করা যাবে। তবে ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ক্যাম্পাসে রেজিস্ট্রেশন বুথ থাকবে।

আগামী ৫ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিযোগিতার মূল পর্ব শুরু হবে। ৩১ জানুয়ারি চূড়ান্ত দল ঘোষণা এবং ১৭ ফেব্রুয়ারিতে গ্র্যান্ড ফাইনাল ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রতিযোগিতার কার্যক্রম শেষ হবে।

অংশগ্রহণকারী প্রত্যেকটি দল মোট তিন ধাপে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে। ধাপ গুলো হচ্ছে- আইডিয়েশ ইনকিউবেটর, ইনোভেশন ওয়াসিস, ভিশন ভ্যানগার্ড। প্রথম দুটি ধাপ অনলাইনে এবং সর্বশেষ ধাপটি অফলাইনে অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ী প্রথম স্থান অর্জনকারী দল পাবে ১৫ হাজার টাকা। দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারী দল পাবে ১০ হাজার এবং তৃতীয় স্থান অর্জনকারী দল পাবে পাঁচ হাজার টাকা।

এবারের হাল্ট প্রাইজের মূল প্রতিপাদ্য ‘আনলিমিটেড’ অর্থাৎ এসডিজির (টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা) ১৭টি লক্ষের সমন্বয়ে তাই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দলগুলোকে এই মূল প্রতিপাদ্য নিয়েই কাজ করতে হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে আরও জানা যায়, হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতা চারটি ধাপে হয়ে থাকে। অন ক্যাম্পাস রাউন্ড, রিজিওনাল সামিট, অ্যাকসিলারেটর এবং গ্লোবাল ফাইনাল। অন ক্যাম্পাস প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দলগুলোর মধ্যে সেরা ৩০টি দল সেমিফাইনাল রাউন্ডে এবং সেখান থেকে ছয়টি দল ফাইনালে অংশগ্রহণের জন্য মনোনীত হবে। এই ছয়টি দলের মধ্যে সেরা তিনটি দলকে চূড়ান্ত বিজয়ী হিসাবে মনোনীত করা হবে। সেরা তিন দলের জন্য থাকবে পুরস্কার।

অন ক্যাম্পাস রাউন্ডে বিজয়ী দলগুলো পরবর্তীতে রিজিওনাল সামিটে এবং সেখানে বিজয়ী দলটি সুযোগ পাবে গ্লোবাল সামিটে অংশগ্রহণ করার। গ্লোবাল সামিটে চূড়ান্ত বিজয়ী দলটি তাদের বিজনেস আইডিয়াটি বাস্তবায়নের জন্য পাবে এক মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

প্রতিযোগিতায় অ্যাসোসিয়েট পার্টনার হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ ইয়ুথ লিডারশিপ সেন্টার (বিওয়াইএলসি), ডিজিটাল মিডিয়া পার্টনার নতুন মার্কেটিং এজেন্সি, গিফট পার্টনার প্রগতি বই ঘর, ওপুলেন্ট গ্যাজেট, ই-লার্নিং পার্টনার কিরণ, বেভারেজ পার্টনার, ফটোগ্রাফি পার্টনার চ্যাকমেট ইভেন্টস।

এছাড়া অনলাইন মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে 'দ্যা বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড, টেলিভিশন চ্যানেল মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে চ্যানেল ২৪।

উল্লেখ্য, 'হাল্ট প্রাইজ' হলো বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের বিশ্বের বৃহত্তম বিজনেস আইডিয়া সৃষ্টিকারী একটি বার্ষিক প্রতিযোগিতা। প্রতিবছর বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১২১টি দেশের প্রায় ১৫০০ ক্যাম্পাসে একযোগে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। গ্লোবাল ফাইনাল রাউন্ডে যে দলের আইডিয়া সবচেয়ে বেশি গ্রহণযোগ্য হবে, তাদেরকে পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হবে এক মিলিয়ন ডলার।

/এমদাদুল/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়