ঢাকা     বুধবার   ১৭ এপ্রিল ২০২৪ ||  বৈশাখ ৪ ১৪৩১

বেইলি রোডে আগুন

মানিব্যাগে রাখা আইডি কার্ড দেখে জবি শিক্ষার্থীর পরিচয় শনাক্ত

জবি সংবাদদাতা || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১১:৪৩, ২ মার্চ ২০২৪   আপডেট: ১২:৩২, ২ মার্চ ২০২৪
মানিব্যাগে রাখা আইডি কার্ড দেখে জবি শিক্ষার্থীর পরিচয় শনাক্ত

বেইলি রোডের গ্রিন কোজি কটেজে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মো. নুরুল ইসলাম নামে এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্ট্যাডিজ বিভাগের এমবিএ প্রফেশনাল প্রোগ্রামের ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন।

নুরুল ইসলামের মানিব্যাগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ড পাওয়ার পর তার পরিচয় জানা গেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমি খবর পেয়ে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করি। সে আমাদের নিয়মিত শিক্ষার্থী না, প্রফেশনাল প্রোগ্রামের শিক্ষার্থী। এজন্য আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সঙ্গে তার যোগাযোগ একটু কম।

তিনি আরও বলেন, এ বিষয়ে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করেছি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যথাসাধ্যভাবে নিহতের পরিবারের পাশে থাকব।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে অগ্নিকাণ্ডের পর আহত ও নিহতদের নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজে। সেখানে কাঁদতে কাঁদতে নুরুল ইসলামের বন্ধুরা ছোটাছুটি করছিলেন। সারি সারি মরদেহের মধ্যে বন্ধুরা খুঁজে পান নুরুল ইসলামের লাশ। এ সময় নুরুল ইসলামের মানিব্যাগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইডি কার্ড পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. মহিউদ্দিন বলেন, নুরুল ইসলাম আমার সরাসরি ছাত্র ছিলেন। সে পাস করে বেরিয়ে গিয়েছে। তার এমন মৃত্যুতে আমি ও আমার বিভাগ খুবই মর্মাহত। মুহুর্তের মধ্যেই যেন তাজা প্রাণ ঝরে গেলো। নুরুল ইসলামের অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুতে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ পরিবার গভীরভাবে শোকাহত।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম এবং কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. হুমায়ুন কবীর চৌধুরী তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি জবি পরিবার মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছে।

শোক প্রকাশ করে জবি উপাচার্য বলেন, বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে দেশ অনেক তাজা প্রাণ হারিয়েছে। অপরিকল্পিত ব্যবস্থাপনার জন্যই এমন ভয়াবহ দুর্ঘটনা বারবার ঘটে। নুরুল ইসলাম আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ছিলেন। তার এই অকাল মৃত্যু আসলেই মেনে নেওয়া যায় না। দেশ একজন সুযোগ্য নাগরিককে হারালো। শোকার্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

/লিমন/মেহেদী/

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়