ঢাকা     বুধবার   ২২ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪৩১

ইউএফএস’র অর্থ আত্মসাৎ: সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা-নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২১:৫৭, ২৩ মার্চ ২০২৩   আপডেট: ২১:৫৮, ২৩ মার্চ ২০২৩
ইউএফএস’র অর্থ আত্মসাৎ: সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে মামলা-নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত

পুঁজিবাজারে চারটি মিউচুয়াল ফান্ড থেকে বিনিয়োগকারীদের ২৩৫ কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি ইউনিভার্সেল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিসেস (ইউএফএস) লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ হামজা আলমগীরের বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং আইনে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

একইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির নিবন্ধন সনদ বাতিলের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এছাড়া ফান্ডগুলোর বিধিবদ্ধ নিরীক্ষা ফার্ম আহমেদ জাকের অ্যান্ড কোং, রহমান মোস্তফা আলম অ্যান্ড কোং এবং সংশ্লিষ্ট নিরীক্ষকদের বিরুদ্ধে অডিট ও অ্যাসিউরেন্স কার্যক্রম পরিচালনায় নিষেধাজ্ঞার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, তদন্ত কমিটি কর্তৃক দাখিলকৃত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (মিউচ্যুয়াল ফান্ড) বিধিমালা, ২০০১ এর বিভিন্ন বিধি ভঙ্গের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তদন্ত কমিটির সুপারিশ মোতাবেক ফান্ডগুলোর পরিচালনার বিভিন্ন দায়িত্বে নিয়োজিত থাকা বিভিন্ন পক্ষের বিরুদ্ধে কমিশন কর্তৃক বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পদক্ষেপগুলো হলো- সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (মিউচ্যুয়াল ফান্ড) বিধিমালা, ২০০১ এর সংশ্লিষ্ট বিধি মোতাবেক সম্পদ ব্যবস্থাপক কোম্পানি ইউনিভার্সাল ফিন্যান্সিয়াল সলিউশনস লিমিটেডের নিবন্ধন সনদ কেন বাতিল হবে না- এ মর্মে নোটিশ জারি করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

জালিয়াতিপূর্বক অর্থ আত্মসাতের সাথে সংশ্লিষ্ট সম্পদ ব্যবস্থাপক কোম্পানি ইউনিভার্সল ফিন্যান্সিয়াল সলিউশনস লিমিটেডর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ হামজা আলমগীর ও তার সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান, এই কোম্পানির পরিচালক, সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের বিরুদ্ধে মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২ মোতাবেক মামলা দায়ের করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ফান্ডসমূহের ট্রাস্টি হিসেবে ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (মিউচ্যুয়াল ফান্ড) বিধিমালা, ২০০১ মোতাবেক সম্পদ ব্যবস্থাপক কোম্পানির পরিচালকবৃন্দ, কর্মকর্তাবৃন্দ তথা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান হতে পাচারকৃত তহবিল, অপরাধলন্ধ আয়, অবৈধ ব্যয় তথা অনাদায়কৃত অর্থ পুনরুদ্ধার করার নিমিত্তে বিশেষ নিরীক্ষাপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ফান্ডসমূহের ট্রাস্টি এবং কাস্টডিয়ান হিসেবে দায়িত্ব পালনে ব্যথতার দায়ে ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) ট্রাস্টি এবং কাস্টডিয়ান বিভাগে তৎকালীন কর্মরত কর্মকর্তাদের সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (মিউচ্যুয়াল ফান্ড) বিধিমালা, ২০০১ এর সংশ্লিষ্ট বিধি মোতাবেক কেন শাস্তি আরোপ করা হবে না এ মর্মে নোটিশ জারি করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

অনিয়মকৃত ৪টি ফান্ডের বিধিবদ্ধ নিরীক্ষা ফার্ম আহমেদ জাকের অ্যান্ড কোং, রহমান মোস্তফা আলম অ্যান্ড কোং এবং সংশ্লিষ্ট নিরীক্ষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তদন্ত প্রতিবেদনটি ফিন্যান্সিয়াল রিপোর্ট কাউন্সিলে পাঠানোর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ বিষয়টি সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত উভয় নিরীক্ষা ফার্মকে এবং এর সব অংশীদারকে পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত সব কোম্পানি, সকল ধরনের সমন্বিত বিনিয়োগ স্কিম (যথা: মিউচ্যুয়াল ফান্ড, অল্টারনেটিভ ইনভেস্টমেন্ট ফান্ড ও এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড) এবং পুঁজিবাজার মধ্যস্থতাকারী সব প্রতিষ্ঠানের অডিট ও অ্যাসিউরেন্স কার্যক্রম পরিচালনার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ঢাকা/এনটি/এনএইচ

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়