ঢাকা     মঙ্গলবার   ২১ মে ২০২৪ ||  জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪৩১

ভর্তুকি দামে বিক্রির জন্য ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনা হচ্ছে 

কেএমএ হাসনাত || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ২০:২১, ৬ জুন ২০২৩  
ভর্তুকি দামে বিক্রির জন্য ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনা হচ্ছে 

ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) ১ কোটি ফ্যামিলি কার্ডধারীর মধ্যে ভর্তুকি দামে বিক্রির জন্য ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনার উদ্যোগ নিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। স্থানীয় উন্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে এসব তেল সংগ্রহ করা হবে। প্রতি লিটার ১৭৮.৫২ টাকা হিসেবে ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনতে ব্যয় হবে ১২৪ কোটি ৯৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। 

সূত্র জানায়, ভর্তুকি দামে বিক্রির জন্য টিসিবি’র মোট ২৮ কোটি ৪৩ লাখ ৪৭ হাজার ৮২৬ লিটার সয়াবিন তেল কেনার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। এর মধ্যে ২০ কোটি ৮৪ লাখ ৩৭ হাজার ৬০২ লিটার তেল কেনার চুক্তি হয়েছে। মোট চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনার প্রস্তাব টিসিবি থেকে গত ২৫ মে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। সমগ্র বাংলাদেশে (সিটি করপোরেশন ও পৌরসভাসহ) টিসিবি’র ফ্যামিলি কার্ডধারী নিম্ন আয়ের প্রায় ১ কোটি পরিবারের মাঝে প্রতি মাসে ভর্তুকি মূল্যে পণ্য বিক্রির লক্ষ্যে টিসিবি কর্তৃক স্থানীয়ভাবে ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কেনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। 

৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল স্থানীয়ভাবে কেনার জন্য পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা ২০০৮ অনুসরণ করে গত ১০ মে তারিখে উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্র দেশের দুটি পত্রিকায় এবং সিপিটিইউ’র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। 

নির্ধারিত সময়ে দুটি দরপত্র জমা পড়ে। এর পর গত ২২ মে দরপত্র উন্মুক্তকরণ কমিটি দরপত্র উন্মুক্ত করে। এতে বসুন্ধরা মাল্টি ফুড প্রডাক্টস প্রতি লিটারের দাম ১৭৮.৫২ টাকা এবং সুপার অয়েল রিফাইনারি লিমিটেড প্রতি লিটারের দাম ১৭৯.৯৫ টাকা উল্লেখ করে। পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা ২০০৮ এর বিধি-১৬(৫ক) অনুযায়ী প্রতি লিটার পেট বোতলের দাপ্তরিক প্রাক্কলিত মূল্য ১৯০.১৯ টাকা।

দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সভা গত ২৪ মে হয়। মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক প্রাপ্ত দরপত্র দুটি রেসপনসিভ বিবেচিত হয়। দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি রেসপনসিভ সর্বনিম্ন দরদাতার কাছ থেকে দরপত্রে প্রস্তাবিত ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল অগ্রিম আয়কর, মূসক ও টিসিবি’র গুদামগুলোতে পরিবহন খরচসহ ১৭৮.৫২ টাকায় কেনার সুপারিশ করা হয়। উল্লেখ্য, মোট মূল্য প্রতি লিটার ১৭৮.৫২ টাকা থেকে ২ শতাংশ অগ্রিম আয়কর বাবদ ৩.৫৭০ টাকা ও পরিবহন খরচ বাবদ ২ টাকা বাদ দিয়ে প্রকৃত মূল্য দাঁড়ায় (১৭৮.৫২-৩.৫৭০-২.০০) ১৭২.৯৫ টাকা। মূল্যায়ন কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের ক্রয়মূল্য দাপ্তরিক দামের চেয়ে (১৯০.১৯-১৭৮.৫২) ১১.৬৭ টাকা কম।   

দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সুপারিশে দরপত্রে অংশগ্রহণকারী বসুন্ধরা মাল্টি ফুড প্রডাক্টস লিমিটেড সর্বনিম্ন দরদাতা হিসেবে ৭০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল ২ লিটার পেট বোতলে সরবরাহ করবে। প্রতি লিটারের দাম ১৭৮.৫২ টাকা হিসেবে মোট ব্যয় হবে ১২৪ কোটি ৯৬ লাখ ৪০ হাজার টাকা। 

এ সংক্রান্ত একটি ক্রয় প্রস্তাবে অনুমোদনের জন্য বুধবার অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠেয় সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় উপস্থাপন করা হবে। 

হাসনাত/রফিক

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়