ঢাকা     রোববার   ২১ জুলাই ২০২৪ ||  শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

মেরাদিয়া হাট কাঁপাচ্ছে ‘কালাবাবু’ ‘সাদাবাবু’ ‘কালাপাহাড়’

নুরুজ্জামান তানিম || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০৯:৫৫, ১৪ জুন ২০২৪   আপডেট: ০৯:৫৭, ১৪ জুন ২০২৪
মেরাদিয়া হাট কাঁপাচ্ছে ‘কালাবাবু’ ‘সাদাবাবু’ ‘কালাপাহাড়’

মেরাদিয়া হাটে কুষ্টিয়ার ‘কালাবাবু’

পবিত্র ঈদুল আজহা সামনে রেখে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকার ঐতিহ্যবাহী অস্থায়ী মেরাদিয়া পশুর হাট জমে উঠেছে। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে হাট শুরু হয়েছে। দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে হাজার হাজার পশু আনা শুরু হয়েছে হাটে। কুষ্টিয়ার ‘কালাবাবু’, জামালপুরের ‘কালাপাহাড়’ ও মধ্য মেয়াদিয়ার ‘সাদাবাবু’ নামে বড় আকারের গরু তোলা হয়েছে মেরাদিয়া হাটে। এবারের ঈদে হাট কাঁপাচ্ছে এসব বড় আকারের গরু।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) মেরাদিয়া পশুর হাট ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।

এখন পর্যন্ত মেরাদিয়া পশুর হাটে এসব গরু সবচেয়ে বড় ও দামি বলে দাবি করছেন বিক্রেতা ও হাট কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার ও বুধবার গরুগুলোকে হাটে আনা হয়েছে। সুদর্শন ও বড় গরুগুলো দেখতে সব সময় দর্শনার্থী ও ক্রেতাদের ভিড় লেগেই রয়েছে। দূর-দূরান্ত থেকে গরুগুলোকে দেখতে আসছেন অনেকেই। কেউ কেউ গরু দুটির সঙ্গে সেলফিও তুলছেন। মেরাদিয়া হাটে গরুগুলো সবার নজর কেড়েছে। বিশালাকৃতির গরু দুটির চলন এবং আয়েশি খাবার খাওয়ার জন্যই তাদের এ নাম রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন খামারি ও বিক্রেতারা।

মেরাদিয়া হাটে অস্ট্রেলিয়ান ফ্রিজিয়ান ষাঁড়  ‘সাদাবাবু’

তবে ক্রেতারা এখনও বিক্রি করার মতো দাম বলছে না। ক্রেতারা যে দাম বলছেন তাকে সন্তুষ্টও হতে পারছেন না তারা। খাবারের দাম বৃদ্ধি এবং উন্নত জাত ভেদে গরুগুলোর দাম চাওয়া হচ্ছে। তাই ভালো দামের অপেক্ষায় আছেন ‘কালাবাবু’, ‘কালাপাহাড়’ ও ‘সাদাবাবু’ বিক্রেতা।

কুষ্টিয়ার মিরপুরের খামারি শেখ সাইদুর রহমান বলেন, নিজ খামারের শাহীওয়াল ক্রস জাতের এ ষাঁড়টি বিক্রির জন্য এ হাটে আনা হয়েছে। শখ করে নাম দেওয়া হয়েছে ‘কালাবাবু’। ৪ বছর ধরে আদর যত্নে লালন-পালন করা গরুটির ওজন ১৩০০ কেজি বা প্রায় ৩৫ মণ। দাম হাঁকানো হয়েছে ২০ লাখ টাকা। ভালো দাম পেলে শখের কালো রংয়ের গরুটি ক্রেতার হাতে তুলে দিতে চান তিনি।

রাইজিংবিডির সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, এখনও ক্রেতাদের থেকে ভালো দাম পাইনি। ভালো দামের অপেক্ষায় আছি। খাবারের খরচ বাড়তি তাই এবার গরুর দাম একটু বেশি চাওয়া হচ্ছে। গরুটির প্রতিদিন খাবার বাবদ খরচ হয় ১০০০ টাকার বেশি। ষাঁড়টির দৈনিক খাদ্য তালিকায় থাকে- কাঁচা ঘাস, গম, ছোলা, ভুট্টার ভুসি। প্রতিদিন দুই থেকে তিনবেলা গোসল করানো হয় একে। রাখা হয় ফ্যানের নিচে। কিন্তু হাটে গরুর তেমন যত্ন নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

অস্ট্রেলিয়ান ফ্রিজিয়ান ষাঁড়  ‘সাদাবাবু’ মেরাদিয়া হাটে এনেছেন স্থানীয় মেরাদিয়া মধ্যপাড়া এলাকার খামারি মোহাম্মদ মূসা। ১২০০ কেজি ওজন বা প্রায় ৩২ মণ ওজনের সাদা রংয়ের গরুটির দাম ১৩ লাখ টাকা চেয়েছেন । 

মেরাদিয়া হাটে অস্ট্রেলিয়ান ফ্রিজিয়ান ষাঁড়  ‘কালাপাহাড়’

মূসা রাইজিংবিডিকে বলেন, অনেকেই দাম বলেছেন। আরেকটু দাম বাড়ালে দিয়ে দিবো। প্রতিদিন হাজার টাকার উপরে খাবার খায় আমার ‘সাদাবাবু’। গরুটি দেখার জন্য ক্রেতার চেয়ে দর্শনার্থীই ভিড় করছেন বেশি।

মেরাদিয়া হাটে অস্ট্রেলিয়ান ফ্রিজিয়ান ষাঁড়  ‘কালাপাহাড়’ এসেছে জামালপুর থেকে। ১১০০ কেজি বা প্রায় ৩০ মণ ওজনের সাদা রংয়ের গরুটির দাম চাওয়া হচ্ছে ১২ লাখ টাকা। গরুটিকে নিজ খামারে লালন-পালন করে বড় করেছেন বলে জানালেন খামারি আমজাদ আলী। খাইয়েছেন ঘরের খাবার। প্রতিদিন ৮০০ টাকার বেশি খাবার খায় এই ‘কালাপাহাড়’। রাইজিংবিডিকে তিনি বলেন, গরুটি ৪ বছর ধরে আমার খামারে বড় হয়েছে। সব সময় পুষ্টিকর খাবার খাওয়াতে চেষ্টা করেছি। তাই লালন-পালন খরচ বেশি পড়েছে। সে হিসাব করেই দাম চেয়েছি। তবে ক্রেতারা অর্ধেক দাম বলছেন। আশা করছি ভালো দামে গরুটি বিক্রি করতে পারবো।

/টিপু/

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  



সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়