ঢাকা     শনিবার   ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ||  অগ্রহায়ণ ২৫ ১৪২৯

‘স্বামীকে বিনা চিকিৎসায় মৃত‍্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছি’

বিনোদন ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১৫:৫৪, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২   আপডেট: ১৬:০৬, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
‘স্বামীকে বিনা চিকিৎসায় মৃত‍্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছি’

অর্থনৈতিক সংকটের কারণে গায়ক আকবরকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে আকবরের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেওয়া এক পোস্টে এসব তথ্য জানান তার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা।

আকবরের শারীরিক অবস্থার কথা জানিয়ে কানিজ ফাতেমা বলেন—‘অথৈর আব্বুর (আকবর) শারীরিক অবস্থা খুব একটা ভালো না। তারপরও ভালো খবর পায়ের ইনফেকশনটা আটকানো গেছে। আপাতত পা রেখেই চিকিৎসা চালানো যাবে।’

আরো পড়ুন: আকবরের পা কেটে ফেলতে হতে পারে: শিল্পীর স্ত্রী

এ পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক সংকটে পড়েছেন আকবরের স্ত্রী। তা জানিয়ে কানিজ ফাতেমা বলেন, ‘আমার পক্ষে হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা চালানো একেবারেই অসম্ভব। গত ১৩ দিন কীভাবে চিকিৎসার খরচ চালিয়েছি সেটা শুধু আমি আর আমার মেয়ে জানি। এই ব‍্যয়বহুল চিকিৎসা আমি আর চালাতে পারছি না। তাই আজ নিজ জিম্মায় অথৈর বাবাকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যাচ্ছি।’

অসহায় অবস্থার কথা উল্লেখ করে কানিজ ফাতেমা বলেন, ‘আল্লাহ আমাকে কঠিন এক বিপদের মুখোমুখি করেছে। আমি নিজেও জানি না এই বিপদ থেকে কীভাবে রক্ষা পাব। আমি নিজেও জানি না আর কখনো অথৈর বাবাকে সুস্থ করতে পারবো কিনা। সত‍্যি খুব অসহায় আমি। নিজের স্বামীকে বিনা চিকিৎসায় মৃত‍্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছি।’

আরো পড়ুন: অস্ত্রোপচার হয়েছে, তবে পা কাটতে হয়নি: আকবরের স্ত্রী

গত মে মাসে আকবরের পায়ে অস্ত্রোপচার করা হয়। তারপর বেশ ভালো ছিলেন তিনি। মাঝের চার মাসে স্টেজ শো পর্যন্ত করেছেন। আকস্মিকভাবে তার পায়ে পানি জমতে থাকে। এরপর গত ১৪ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয় তাকে।

আকবরের ডান পায়ে পচন ধরেছে। হাসপাতালে ভর্তির পরের দিন তার ডান পায়ে একটি অস্ত্রোপচার করা হয়। গত ১৯ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় দফায় অস্ত্রোপচার করা হয়।  এসব সমস্যা ছাড়াও আকবরের শরীরে সোডিয়াম, হিমোগ্লোবিন, ক্যালসিয়ামের পরিমাণ কমে গিয়েছিল বলেও রাইজিংবিডিকে জানিয়েছিলেন কানিজ ফাতেমা।

ঢাকা/শান্ত

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়